The news is by your side.

বিলুপ্তির পথে সেন্সর বোর্ড

0 104

সেন্সরের জাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে বহু সিনেমা ডুবে গেছে অতল গহ্বরে। কিছু সিনেমা বছরের পর বছর ধরে শুধু ছাড়পত্রের অপেক্ষায় ঝুলে আছে। গল্প-নির্মাণের ওপর সেন্সর বোর্ডের কাঁচি শিল্পের স্বাধীনতায় সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা বলেই মনে করেন বেশিরভাগ নির্মাতা। তাই দীর্ঘ দিন ধরে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের দাবি, সেন্সর বোর্ড বিলুপ্ত করা হোক। এর পরিবর্তে চালু করা হোক সার্টিফিকেশন ব্যবস্থা, যা বিশ্বজুড়ে প্রচলিত।

এবার সেই শুভ ইঙ্গিতই পাওয়া গেলো। শিগগিরই দেশের সিনেমায় সার্টিফিকেশন ব্যবস্থা চালু হবে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন সেন্সর বোর্ডের নতুন কমিটির সদস্য ও প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু। তার মতে, বর্তমানে সার্টিফিকেশনের নীতিমালা তৈরির কাজ চলছে।

মঙ্গলবার চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের নতুন কমিটির তালিকা প্রকাশ করেছে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়। ১৯৬৩ সালের সেন্সরশিপ আইনের ধারা ৩ এবং ১৯৭৭ সালের বাংলাদেশ সেন্সরশিপ অব ফিল্মস রুলসের বিধি ৪ মোতাবেক আগামী ১ বছরের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন নতুন সদস্যরা। বরাবরের মতো বোর্ডের চেয়ারম্যান থাকছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব।

সদস্য হিসেবে সিনেমা অঙ্গন থেকে আছেন অভিনেত্রী সুজাতা আজিম, নির্মাতা-প্রযোজক দেওয়ান নজরুল, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, অভিনেত্রী রোজিনা ও অরুণা বিশ্বাস এবং অভিনেত্রী ফাল্গুনী হামিদ।

সেন্সর বোর্ড নিয়ে বিতর্ক-সমালোচনার অন্ত নেই। ছাড়পত্রের দীর্ঘসূত্রিতা কিংবা নিষিদ্ধের গ্যাঁড়াকলে বন্দী নির্মাতারা। এ বিষয়ে নতুন কোনও পদক্ষেপ নেবেন কিনা জানতে চাইলে প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘আমি বরাবরই দায়িত্বশীল ভূমিকা রেখেছি। সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি কোনও সিনেমা যেন আটকে না থাকে। শুধু বোর্ডের সদস্য হিসেবে নয়, ব্যক্তিগত পর্যায়েও আমি নির্মাতা-প্রযোজকদের সহযোগিতা করেছি। এবারও সচেষ্ট থাকবো, যেহেতু আমি প্রযোজকদের নেতৃত্ব দিচ্ছি, তাদের পক্ষে থাকার এবং কথা বলার চেষ্টা করবো।’

বিভিন্ন দেশে এখন আর সেন্সর বোর্ড ব্যবস্থা নেই। বরং সার্টিফিকেশন বোর্ড রয়েছে। যেখান থেকে ছবির গ্রেড অনুসারে সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। বাংলাদেশেও এই ব্যবস্থা চালুর জন্য দাবি জানিয়ে আসছেন নির্মাতা-প্রযোজকরা।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, আগামী ১৬ এপ্রিল থেকে এটি কার্যকর হবে।

একই দিন ফিল্ম সেন্সর আপিল কমিটিও পুনর্গঠন করা হয়েছে। এতে সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন মন্ত্রীপরিষদ সচিব। সদস্য হিসেবে আছেন অভিনেত্রী সুবর্ণ মুস্তাফা, নির্মাতা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু, অভিনেতা তারিক আনাম খান এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ নুরুল করিম। কমিটির আহ্বায়ক পদে রয়েছেন সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান। প্রজ্ঞাপনের তারিখ (২৮ মার্চ) থেকে এই কমিটি আগামী দুই বছর দায়িত্ব পালন করবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.