The news is by your side.

মেয়েদের সব কিছু গোপন রাখতে হবে কেন?  প্রশ্ন আলিয়ার

0 48

 

মেয়েদের সব কিছু গোপন রাখতে হবে কেন?  প্রতি মুহূর্তে কর্মস্থলেও  যৌনতাসর্বস্ব মন্তব্য শুনতে হবে কেন?

বলিউডের অন্দরে আজও লিঙ্গবৈষম্যের ছায়া। কারণে-অকারণে মহিলাদের কোণঠাসা করার প্রবণতা দেখা যায়। নারীবিদ্বেষের শিকার হয়েছেন আলিয়া ভট্টও, সম্প্রতি মুখ খুললেন সে নিয়ে। ২৯ বছর বয়সি অভিনেত্রী বললেন, ‘‘কাজের সময় যৌনগন্ধি মন্তব্য প্রায়ই শুনতে হত। আগে বুঝতাম না। ক্রমশ শুনতে শুনতে ধারণা তৈরি হয়, কে কেন কী বলছে।’’

আলিয়া জানান,  এখন তিনি অনেক বেশি সচেতন। নিজের সম্মানরক্ষার্থে আরও বেশি সংবেদনশীল হয়ে উঠেছেন। তাঁর কথায়, ‘‘মাঝেমাঝে আমার সতীর্থরা জিজ্ঞেস করেন, তোমার সমস্যাটা কী?  এত আক্রমণাত্মক  হয়ে উঠছ কেন? পিরিয়ড হয়েছে নাকি?’’ এ সব খোঁচার উত্তরে ইদানীং ঝাঁঝিয়ে ওঠেন আলিয়া। বললেন, ‘‘এখনও মেয়েদের অন্তর্বাস লুকিয়ে রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়। পোশাকের নীচেও দেখা না গেলে ভাল হয়! বলা হবে,  বিছানার উপর রেখো না, লুকিয়ে রাখো। কিন্তু কেন? নারীদের সব কিছু গোপন  করতে বলার অর্থ কী? এমন নয় যে, এটা আমার ক্ষেত্রেই ঘটেছে, কিন্তু যখন চারপাশকে উপলব্ধি করি, একজন নারী হিসাবে আমার আত্মসম্মানে লাগে।’’

আলিয়া প্রযোজিত ডার্ক কমেডি ‘ডার্লিংস’-এও উঠে এসেছে নারীর প্রতিনিয়ত সংগ্রাম।  জসমিত কে. রিনের পরিচালনায় সেই ছবিটি এক স্ত্রীকে নিয়ে, যে তার নিজের স্বামীকে অপহরণ করে। বহু বছর ধরে নির্যাতিত হওয়ার প্রতিশোধ নিতে চায় সে। এই কাজে মেয়েকে সাহায্য করে তার মা। ছবিটিতে আলিয়া ভট্ট, শেফালি শাহ এবং বিজয় বর্মা মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

কাজের জগতে সদা সক্রিয় ‘গঙ্গুবাঈ’। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থাতেই হলিউডে অ্যাকশন ছবির কাজ শেষ করেছেন তিনি। ‘দশভুজা নারী’ হিসাবে তিনিই এখন বলিউডের আইকন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.