The news is by your side.

বিশ্বকাপের আগেই পজিশনগুলো নির্দিষ্ট হয়ে যাবে : সাকিব

0 102

বাংলাদেশের ওয়ানডে দলে ফিনিশারের ভূমিকায় কে খেলবেন, তা নিয়ে একধরনের সুস্থ প্রতিযোগিতা দেখা যাচ্ছে। যা অক্টোবরে ভারতের মাটিতে শুরু হতে যাওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপে দলের জন্য বেশ ইতিবাচক বলে মনে করেন সাকিব আল হাসান।

বলা যায়, দুয়েকটি পজিশন ছাড়া বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল অনেকটাই প্রস্তুত। তবে, বিশ্বকাপের সময় ঘনিয়ে আসলেও বাংলাদেশের ফিনিশার পজিশন নিয়ে দুরবস্থা এখনো কাটেনি। গেল আয়ারল্যান্ড সিরিজের শেষ ম্যাচেও যেটা ফুটে উঠেছে। ১৩ ওভার বাকি থাকতে দুইশ ছোঁয়া বাংলাদেশ দলীয় সংগ্রহ তিনশো ছুঁতে পারেনি। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ঘাটতি দেখেছেন এই ফিনিশিং পজিশনেই।

মূলত ৬-৭ নম্বর পজিশন নিয়েই চিন্তা করছে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজম্যান্ট। তামিমের মত সাকিবও বিষয়টি নিয়ে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন। তার মতে, নির্বাচকদের জন্য এটা একটা মধুর সমস্যায় পরিণত হয়েছে। যা দলের জন্য ভালো খবর। এশিয়া কাপের আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজও খেলবে বাংলাদেশ। ফলে পজিশন নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা করার সুযোগ এখনও রয়ে গেছে। সাকিব আশা প্রকাশ করেন, বিশ্বকাপের আগেই পজিশনগুলো নির্দিষ্ট হয়ে যাবে।

গতকাল ইংল্যান্ডে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাকিব কথা বলেন, ‘প্রতিযোগিতা কিন্তু একজনের না, বেশ অনেকজনের। প্রতিটা খেলোয়াড়ই ওইখানে পারফর্ম করছে। ঘরোয়া ক্রিকেট দেখেন আফিফ আছে, মোসাদ্দেক, সোহান, রিয়াদ ভাই অসাধারণ খেলেছে, দলের সঙ্গে রাব্বি আছে, মিরাজ সাতে ব্যাটিং করছে। একটা জায়গার জন্য ৬-৭ জনের অপশন। সিদ্ধান্তটা খুবই সহজ না। আমি নিশ্চিত বিশ্বকাপের জন্য কন্ডিশন, প্রতিপক্ষ মাথায় রেখে নির্বাচক, অধিনায়ক, কোচ সঠিক সিদ্ধান্তই নেবে।’

সাকিব আরও বলেন, ‘আমি আসলে নির্বাচক না, ডিসিশন মেকিংয়ের অংশও না। আমার জন্য বলা মুশকিল। কিন্তু দল নিয়ে আমি খুশি এবং আমি নিশ্চিত যারাই এই দলে থাকবে তারা তাদের জায়গা থেকে ১৭ কোটি মানুষকে প্রতিনিধিত্ব করবে এবং বাংলাদেশের জন্য সেরাটাই দেয়ার চেষ্টা করবে। সাম্প্রতিক সময়ে অনেক খেলোয়াড়ই প্রতিনিধিত্ব করেছে, আর এক বিভাগ থেকে তো আপনি ১১ জনকে পাবেন না। আপনি ২-৩ জনে খুশি থাকতে পারবেন। ৮টা বিভাগ থেকে দুজন করে আসলেও ১৬ জন আসে। ‘

বিশ্বকাপেই মূল কম্বিনেশনটা ঠিক হবে বলে মনে করেন সাকিব। সেই সঙ্গে অনেক সিদ্ধান্ত প্রতিপক্ষ কন্ডিশনকে ভেবেও নিতে হবে। বাংলাদেশ দলে এখন আসলে ট্রায়াল চলছে বলে মনে করেন টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক, ‘সিদ্ধান্তটা আগে হয়, রেজাল্টটা পরে। আমি নিশ্চিত কোচ, অধিনায়ক, নির্বাচক, সিদ্ধান্ত প্রণেতা যারা আছে তারা সবাই ভালো ভালো চিন্তা করবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.