The news is by your side.

পিকে হালদারসহ ২০ জনের সম্পদ-হিসাব-পাসপোর্ট জব্দের নির্দেশ

0 261

 

এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদারসহ (পিকে হালদার) ২০ জনের সম্পদ ও ব্যাংক হিসাব জব্দ এবং পাসপোর্ট আটকানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। তারা যেন দেশত্যাগ না করতে পারেন, সেদিকে নজর রাখার নির্দেশও দিয়েছেন আদালত।

বিচারপতি মোহাম্মদ খুরশিদ আলম সরকারের একক হাই কোর্ট বেঞ্চের আদেশে পি কে হালদারের মা, স্ত্রী, ভাইসহ ওই কোম্পানির শীর্ষ ১৯ কর্মকর্তার পাসপোর্ট জব্দের আদেশও দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র সচিবকে এ নির্দেশ দিয়ে আদালত বলেছে, “অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হল, যাতে এসব ব্যক্তিরা কোনোভাবেই দেশ ছাড়তে না পারেন।”

একই সঙ্গে বিচারাধীন মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আদালত তাদের নগদ অর্থ, গাড়ি, মজুদসহ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি কোনও ব্যক্তি বা সত্তার কাছে হস্তান্তর না করতেও নির্দেশ দিয়েছে।

ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দকৃত তালিকায় থাকা অন্য ১৯ জন হলেন- কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম নুরুল আলম, পরিচালক জহিরুল আলম, নাসিম আনোয়ার, বাসুদেব ব্যানার্জি, পাপিয়া ব্যানার্জি, মোমতাজ বেগম, নওশেরুল ইসলাম, আনোয়ারুল কবির, প্রকৌশলী নুরুজ্জামান, আবুল হাসেম, মো. রাশেদুল হক, পিকে হালদার, পিকে হালদারের মা লীলাবতী হালদার, স্ত্রী সুস্মিতা সাহা, ভাই প্রিয়তোষ কুমার হালদার, চাচাতো ভাই অমিতাভ অধিকারী, অভিজিৎ অধিকারী, ব্যাংক এশিয়ার সাবেক পরিচালক ইরফান উদ্দিন আহমেদ ও পিকে হালদারের বন্ধু উজ্জ্বল কুমার নন্দী।

এমএম স্ট্রাকচারাল লিমিটেড কোম্পানি ৮ কোটি টাকার দাবিতে ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলার শুনানি নিয়ে আদালত আজ এ আদেশ দেন। এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ২ ফেব্রুয়ারি দিন ঠিক করেছেন আদালত।

এছাড়া হাইকোর্ট কোম্পানি পরিচালনার জন্য স্বাধীন পরিচালক ও চেয়ারম্যান হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদকে নিয়োগ দিয়েছেন। পাশাপাশি পিকে হালদারকে দেওয়া ঋণ সংক্রান্ত যাবতীয় কাগজপত্র আগামী ১৫ দিনের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে বলা হয়েছে।

পিকে হালদার এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তিনি কোটি কোটি টাকা লোপাট করে বিদেশে পালিয়েছেন বলে গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

৮ জানুয়ারি প্রশান্ত কুমার হালদারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুদক। তাঁর বিরুদ্ধে ২৭৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.