The news is by your side.

নিজ বাসাতে গোপনে ক্যামেরাবন্দী আলিয়ার ব্যক্তিগত মুহূর্ত!  বলিউড তারকাদের ক্ষোভ

0 86

এত দিন আলোকচিত্রীদের ক্যামেরা বলিউড তারকাদের বাসার বাইরে লুকিয়ে থাকত। বিমানবন্দর থেকে জিম, শপিং মল— তারকারা যেখানেই যেতেন, পাপারাজ্জিদের ক্যামেরা তাঁদের পিছু পিছু ধাওয়া করত। কিন্তু এবার সব সীমা পার করে ফেলল দুই আলোকচিত্রী। তাঁদের ক্যামেরার লেন্স এবার ঢুকে পড়েছে খোদ আলিয়া ভাটের বাসার অন্দরে। আর আলিয়ার ব্যক্তিগত কিছু মুহূর্তের ছবি তাঁরা ক্যামেরাবন্দী করেছে। তাই রেগে আগুন কাপুর পরিবারের বউমা। শুধু আলিয়া নন, এ ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আনুশকা শর্মা, করণ জোহর, অর্জুন কাপুর, জাহ্নবী কাপুরসহ আরও অনেক বিটাউন তারকা।

দিনদুপুরে আলিয়া তাঁর নিজের বাসার বৈঠকখানায় অলসভাবে সময় কাটাচ্ছিলেন। তাঁর পরনে ছিল ঘরের পোশাক। আর হাতে ছিল মুঠোফোন। একেবারেই ঘরোয়া আমেজে ছিলেন। কিন্তু নিজের বাসাতেও শান্তির দুপুর কাটানোর জো নেই আলিয়ার।

প্রতিবেশী বিল্ডিং থেকে এক নিউজ পোর্টালের দুই আলোকচিত্রী আলিয়ার অলস দুপুরের শান্তি ভঙ্গ করল। তাঁরা এই বলিউড নায়িকার কিছু ব্যক্তিগত মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দী করেছিলেন। জানা গেছে, আলিয়া নাকি তাঁদের হাতেনাতে ধরেছিলেন। আর এতে বেজায় চটে ইনস্টাগ্রামে এক পোস্ট করেছেন তিনি।

সেই নিউজ পোর্টালকে এক হাত নিয়েছেন এই বলিউড তারকা। আলিয়া ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ক্ষোভ প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘আপনারা কী আমার সঙ্গে রসিকতা করছেন। আর পাঁচটা দুপুরের মতো আমি আমার বাড়ির বৈঠকখানায় বসেছিলাম। আর তখন আমার মনে হয়েছিল, কেউ আমার ওপর নজরদারি করছে। আমি উপরের দিকে তাকাতেই দেখি যে পাশের বিল্ডিং থেকে দুজন মানুষ ক্যামেরা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। আর তাদের ক্যামেরার লেন্স আমাকেই তাক করছে। এবার বলুন, এ ধরনের আচরণ কি কখনোই কাম্য? এ ধরনের কাজের অনুমতি কেউ কি কখনো দেয়? এটা একজনের গোপনীয়তাকে হনন করা ছাড়া আর কী? আপনাদের আর আমাদের মধ্যে এক সীমারেখা ছিল, যা তারা আজ অতিক্রম করে ফেলেছে।’ আলিয়া তাঁর পোস্টটি মুম্বাই পুলিশকে ট্যাগ করেছেন।

আলিয়ার সঙ্গে সমব্যাথী একঝাঁক বিটাউন তারকা। এব্যাপারে অনেকেই তাঁদের মতামত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যক্ত করেছেন। বলিউড নায়িকা আনুশকা শর্মার সঙ্গে প্রায় এ রকমই এক ঘটনা ঘটেছিল। তিনি তাঁর ইনস্টা স্টোরিতে লিখেছিলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা এরা প্রথমবার ঘটায়নি। প্রায় দুবছর আগে এরা আমাদের ছবি চুপিচুপি নিয়েছিল। আর আমরা তা নিজের চোখে দেখেছি। এরপর আমরা এদের এক হাত নিয়েছিলাম। মানুষের গোপনীয়তা আর ব্যক্তিগত সময়কে এরা সম্মান করতে জানে না। এটা সত্যি লজ্জাজনক ঘটনা। আমরা বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও এরা আমাদের কন্যার ছবি পোস্ট করে।’

অর্জুন কাপুর আলিয়ার সমর্থনে বলেছেন, ‘অত্যন্ত লজ্জাজনক ঘটনা। এটা এমন এক ঘটনা, যা সব সীমাকে অতিক্রম করে ফেলেছে। একজন নারী তাঁর নিজের বাড়িতেও সুরক্ষিত নয়।’

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.