The news is by your side.

জিম্বাবুয়েকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সমতায় বাংলাদেশ

0 12

 

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। দলের হয়ে লিটন দাস সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন। এই জয়ের ফলে সিরিজে সমতা ফেরালো টাইগাররা।

জয়ের জন্য ১৩৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দারুন ‍সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও মুনিম শাহরিয়ার। দলীয় ৩৭ রানে বিদায় নেন মুনিম শাহরিয়ার। এনগ্রাভার স্লোয়ারে বোল্ড হওয়ার আগে তিনি ৮ বলে ৭ রান করেন। মুনিমের বিদায়ের পর ওপেনার লিটন দাসের সঙ্গী হন এনামুল হক বিজয়। ৩০ বলে ফিফটির দেখা পান ওপেনার লিটন। কিন্তু নিজের ইনিংসকে বড় করতে পারেন তিনি। ৫৬ রান করে উইলিয়ামের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে লিটন। এদিকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ছন্দ খুঁজে পাচ্ছেন না এনামুল হক বিজয়। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ২৭ বলে ২৬ রানের পর দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ১৫ বলে ১৬ রান করেন তিনি। রাজাকে লং অনে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ধরা পড়েন মাসাকাদজার হাতে বিজয়। শেষ পর্যন্ত ১৭.৩ ওভারে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। আফিফ হোসেন ৩০ রানে ও নাজমুল হোসেন ১৯ রানে অপরাজিত থাকেন।

জিম্বাবুয়ের ইনিংসে মোসাদ্দেক হোসেনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে স্বপ্নের মতো শুরু পায় বাংলাদেশ। মোসাদ্দেক একে একে ফেরান জিম্বাবুয়ের ৫ ব্যাটসম্যানকে। প্রথম ওভারে রেজিস চাকাভা এবং ওয়েসলে মাধেভেরেকে ফেরান তিনি।  নিজের দ্বিতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসে শন উইলিয়ামসকে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান তিনি। আর নিজের কোটার শেষ ওভারে মিল্টন শুম্বাকে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথমবার ৫ উইকেট পান মোসাদ্দেক। ৩১ রানে ৫ উইকেটের পর দলের হাল ধরেন রাজা-বার্ল। তাদের রাজা-বার্লের ৮০ রানের জুটিতে মূলত ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান সংগ্রহ করতে পারে স্বাগতিকরা।

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১৭ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ। সিরিজ বাঁচাতে হলে আজ জয় ছাড়া কোনো বিকল্প ছিল না টাইগারদের।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.