The news is by your side.

চুক্তি নবায়নে বেতন কমানোর শর্ত পিএসজির, রাজি নন মেসির বাবা

0 79

 

পিএসজিতে এখন রীতিমতো টালমাটাল অবস্থা। দুই তারকা লিওনেল মেসি ও নেইমারের দলবদলের গুঞ্জনের ডালপালা দিন দিন বড় হচ্ছে। ফরাসি দৈনিক এল ইকুইপে জানিয়েছে, গত বুধবার প্যারিসে দুই পক্ষের দীর্ঘ বৈঠক হয়। যেখানে কোনো ফলপ্রসূ আলোচনা হয়নি। উল্টো মন খারাপ করেই মিটিংরুম ছাড়েন মেসির বাবা জর্জে। নতুন প্রস্তাব নিয়ে স্পেনে ছুটে গেছেন।

বার্সার এল প্রাত বিমানবন্দরে পা রাখতেই তাঁকে ঘিরে ধরেন সেখানকার সাংবাদিকরা। তবে কোনো সদুত্তর না দিয়ে জর্জে গাড়িতে উঠে যান। এর পরই স্প্যানিশ দৈনিকগুলো ফলাও করে ছাপে, বার্সার কর্তাদের সঙ্গে নতুন কোনো প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করতেই মেসির বাবার স্পেনে আসা। এর আগে নতুন চুক্তি করার মধ্যে বেতন কমানোর শর্ত জুড়ে দিয়ে আগুনে ঘি ঢালেন পিএসজির কর্তারা। ক্লাবটির স্পোর্টিং ডিরেক্টর মারিও ক্যাম্পোসসহ আরও কয়েকজন ছিলেন বুধবারের মিটিংয়ে। সেখানে আলোচনায় মেসির বাবার পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া মিললেও শেষ পর্যন্ত বেতন কমানোর কথা বলায় তিনি চুক্তি নবায়নে রাজি হননি।

এ দিকে মেসি পিএসজির সঙ্গে চুক্তি এখনও করেননি- এমন খবরে সৌদি আরবের কয়েকটি ক্লাব দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে। যার মধ্যে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর রাইভাল ক্লাব আল হিলালও আছে। বসে নেই ইন্টার মিয়ামি। তারাও মেসিকে নিতে মিলিয়ন মিলিয়ন অর্থ দিতে প্রস্তুত। তারা অবশ্য বিশ্বকাপ চলাকালেও মেসির বাবার সঙ্গে কথা বলেছিল। সে সময় তিনি পিএসজির সঙ্গে আলোচনা করে জানাবেন বলে তাদের অপেক্ষায় রাখেন। এখন যখন পিএসজির সঙ্গে কথাবার্তায় মিলছে না মেসিদের, তখন তো সুযোগ নিতেই চাইবে ইন্টার মিয়ামি।

পিএসজির এমন প্রস্তাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও শোরগোল। কয়েক মাস আগে কাতারে ঝলক দেখিয়ে ফুটবলের সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা বিশ্বকাপের ট্রফি জেতেন মেসি। পুরো আসরে একা আলো ছড়িয়ে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার গোল্ডেন বলও জিতে নেন। যেখানে বিশ্বকাপের পর তার বাজারমূল্য তরতর করে বেড়ে যাওয়ার কথা, সেখানে হচ্ছে উল্টোটা। পিএসজি চাইছে মেসি এখন যে পরিমাণ বেতন (মাসে প্রায় ৩.৫ মিলিয়ন ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৩৮ কোটির বেশি) পাচ্ছেন, তা কমিয়ে আনতে। এমনটা হলে কিছুতেই আর্জেন্টাইন তারকা পিএসজিকে হ্যাঁ বলবেন না। সেক্ষেত্রে হয়তো এই গ্রীষ্মের দলবদলে মেসিকে বেছে নিতে হবে নতুন কোনো ঠিকানা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.