The news is by your side.

কঠিন পরিস্থিতি বাখমুতে, টিকে থাকতে যুদ্ধ বিমান চাইলেন জেলেনস্কি

0 92

৬ মাসের বেশি সময় পূর্ব ইউক্রেনের বাখমুত শহর নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র রুশ ও ইউক্রেনীয় যোদ্ধাদের ভারী লড়াই চলছে। এখন পর্যন্ত কেউই ছেড়ে কথা বলছে না। ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, ‘পূর্ব ফ্রন্টলাইনে বাখমুত শহরের পরিস্থিতি কঠিন থেকে আরও কঠিন হয়ে উঠেছে। শত্রুরা সবকিছু ধ্বংস করে দিচ্ছে।’

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট এমন সময় মন্তব্য করলেন যখন মার্কিন ট্রেজারি সচিব জ্যানেট ইয়েলেন সোমবার কিয়েভে সফরের সময় রাশিয়াকে অস্ত্র সরবরাহের বিষয়ে চীনকে সতর্ক করেন। সোমবার কিয়েভে আকস্মিক সফরে আসেন জ্যানেট। তিনি বলেন, ইউক্রেনে অর্থনৈতিক ও বাজেটে সহায়তায় নতুন করে ১০০ কোটি মার্কিন ডলারের দেবে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বক্তব্য পুনর্ব্যক্ত করে জ্যানেট আরও বলেন, যতদিন বিজয়ী না হবে ততদিন কিয়েভের পাশে থাকবে ওয়াশিংটন।

গত কয়েক মাসে ইউক্রেনজুড়ে সবচেয়ে ভয়াবহ লড়াইটি হচ্ছে বাখমুতে। এর একটি অংশ রুশ সেনা এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী মিত্রদের নিয়ন্ত্রণে। বাণিজ্য শহরটি দখল নিতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে মস্কো। কয়েক মাসের লড়াইয়ে সেনারা কিছুটা অগ্রগতিও লাভ করেছে। মস্কো সমর্থিত ডনেস্কে পিপলস রিপাবলিকান বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ডেনিস পুশিলিন বলেন, ‘শহরের অধিকাংশ সড়ক রাশিয়ার গোলাবারুদের নিচে।’

এতে পরিস্থিতি দিনে দিনে আরও জটিল হচ্ছে। বাখমুতের সবশেষ অবস্থা নিয়ে সোমবার দিবাগত রাতে ভার্চুয়ালি ভাষণে জেলেনস্কি বলেন, ইউক্রেনীয় সেনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। যারা এখনও এলাকাটির নিয়ন্ত্রণ রাখতে নিজেদের সর্বোচ্চটা দিচ্ছে।

রুশ সন্ত্রাস থেকে ইউক্রেনের সব অঞ্চল রক্ষায় পশ্চিমাদের কাছে আবারও যুদ্ধ বিমান পাঠানোর আহ্বান জানান জেলেনস্কি।

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.