The news is by your side.

আন্তর্জাতিক আইন লংঘন করেছে মিয়ানমার: মির্জা ফখরুল

0 150

বাংলাদেশ সীমান্তে মিয়ানমার সেনাবাহিনী কর্তৃক আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে গোলা বর্ষণ ও মর্টারশেল নিক্ষেপ করে হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে স্বাধীন ও স্বার্বভৌম বাংলাদেশের ভৌগলিক অখণ্ডতা রক্ষার্থে সরকারকে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি।

শনিবার বিকেলে নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ওই আহ্বান জানান।

মর্টার শেল নিক্ষেপের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, মিয়ানমার সশস্ত্র বাহিনী বাংলাদেশের অভ্যন্তরে গোলা নিক্ষেপের মাধ্যমে সীমান্ত এলাকায় গভীর আতঙ্কজনক পরিস্থিতি করেছে। বাংলাদেশের অবৈধ সরকারের নতজানু ও দুর্বল কূটনীতির সুযোগে গত ২৮ আগস্ট শুরু হওয়া মিয়ানমার সশস্ত্র বাহিনীর সামরিক ঔদত্যপূর্ণ আচরণ বেড়েই চলেছে। যার সর্বশেষ উদাহরণ শুক্রবার মিয়ানমার বাহিনীর মর্টার শেলের আঘাতে রোহিঙ্গা কিশোরের মৃত্যু। এসব আন্তর্জাতিক আইনের চরম লঙ্ঘন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সীমান্তে মর্টারশেল ছোড়ার এক সপ্তাহের মাথায় ৩ সেপ্টেম্বর মিয়ানমার বাহিনী বারংবার আকাশসীমা লঙ্ঘন করে যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার থেকে গোলা নিক্ষেপ করে। বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্যরেখার কাছাকাছি বাংলাদেশ ভূখণ্ডের ১২০ মিটারের ভেতরে পড়ে বিস্ফোরিত হয়, যা সরাসরি আন্তর্জাতিক আইনের চরম লঙ্ঘন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের সবার স্মরণে আছে, ২০১৭ সালের ২৫ ও ২৬ আগস্ট মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও পুলিশের গণহত্যার মুখে প্রাণ বাঁচাতে আট লক্ষাধিক রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এমনিতেই ১২ লাখ রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বাংলাদেশ মহাসংকটে রয়েছে। তার ওপর এখন নতুন করে সীমান্ত সমস্যা সৃষ্টি করছে মিয়ানমার বাহিনী।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, মশিউর রহমান, রিজভী আহমেদ, খায়রুল কবির খোকন, সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.