The news is by your side.

ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হার ভারতের

0 29

 

স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতলো সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। প্রথম দুই ম্যাচ হেরে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে পড়েছিলো অস্ট্রেলিয়া। এর পরের দুই ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা আনে তারা। বুধবার রাতে সিরিজ নির্ধারণী পঞ্চম ও শেষ ম্যাচ ৩৫ রানে জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া।

দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলাতে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় অস্ট্রেলিয়া। দুই ওপেনার উসমান খাজা ও অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ৭৬ রানের সূচনা এনে দেন। ফিঞ্চকে ব্যক্তিগত ২৭ রানে শিকার করে ভারতকে প্রথম সাফল্য এনে দেন স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা।

খাজার সাথে ৯৯ রানের জুটি গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন তিন নম্বরে নামা পিটার হ্যান্ডসকম্ব। ৬০ বলে ৫২ রান করে হ্যান্ডসকম্ব থামলেও ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন খাজা।সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে ১০৪ রান করেছিলেন তিনি। এবার ১০০ রানে থামেন খাজা। তার ১০৬ বলের ইনিংসে ১০টি চার ও ২টি ছক্কা ছিলো।

খাজা-হ্যান্ডসকম্বের ব্যাটিং দৃঢ়তায় বড় সংগ্রহের ভিত পেয়েও পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা কাজে লাগাতে পারেননি। তাই ১ উইকেটে ১৭৫ রান থেকে ৯ উইকেটে ২৭২ রানের সংগ্রহ পায় অস্ট্রেলিয়া। পরের দিকে জেই রিচার্ডসন ২১ বলে ২৯ ও মার্কাস স্টোয়িনিস-অ্যাস্টন টার্নার ২০ রান করে করেন। ভারতের ভুবেনশ্বর কুমার ৩টি ও মোহাম্মদ সামি-জাদেজা ২টি করে উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ২৭৩ রানের জবাবে ভালো শুরু পায়নি ভারত। দলীয় ১৫ রানে ফিরেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান শিখর ধাওয়ান। ১২ রান করেন তিনি। শুরুতেই ওপেনারকে হারালেও দ্বিতীয় উইকেটে ৫৩ রানের জুটিতে দলকে খেলায় ফেরান আরেক ওপেনার রোহিত শর্মা ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি। কিন্তু ২০ রান করে আউট হন কোহলি।

দলীয় ৬৮ রানে কোহলির বিদায়ের পর দ্রুত আরও ৪ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে ভারত। এ সময় স্বাগতিকদের স্কোর দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ১৩২ রান। এ অবস্থায় প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন কেদার যাদব ও ভুবেনশ্বর। তাদের প্রতিরোধে দলের ভারতের স্কোর ২শ ছাড়িয়ে যায়।

দলীয় ২২৩ রানে পরপর দুই বলে কেদার-ভুবেনশ্বর ফিরে গেলে ভারতের আশা শেষ হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত ২৩৭ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। কেদার ৪৪ ও ভুবেনশ্বর ৪৬ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার এডাম জাম্পা ৪৬ রানে ৩ উইকেট নেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.