The news is by your side.

সোমবার মধ্যরাত থেকে ২৪ ঘণ্টা উবার সার্ভিস বন্ধ থাকবে

0 197

 

রাইড শেয়ারিং সার্ভিস উবারের নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হিসেবে ২৪ ঘণ্টার জন্য এই সার্ভিসে গাড়ি চালানো বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন চালকরা। তাদের ঘোষণা অনুযায়ী,  সোমবার মধ্যরাত থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত রাজধানীতে উবারের কোনো গাড়ি চলবে না।

রাইড শেয়ারিং প্রাইভেটকার চালকদের একটি সংগঠন রাইড শেয়ারিং ড্রাইভারস ইউনিয়ন এই কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছে।

রোববার বিকেলে ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহমেদ জানান, গত পাঁচ মাস ধরে তারা উবার থেকে আশানুরূপ সেবা পাচ্ছেন না। তাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত কমিশন নেওয়া হচ্ছে। অন্যদিকে গাড়ির চাহিদা বেড়ে গেলে ভাড়া বাড়িয়ে দিয়ে যাত্রীদের পকেট কাটছে বিদেশি কোম্পানি উবার।

বেলাল বলেন, উবারের এসব সাম্প্রতিক আচরণে আমরা চালকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি।

জানা গেছে, এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে চালকরা কয়েকদিন আগে ঐক্যবদ্ধ হয়ে উবারের স্থানীয় অফিস উত্তরায় গেলে তাদের বলা হয়, উবারের সব সিদ্ধান্ত ভারত থেকে নেওয়া হয়। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন। এখানে ঢাকায় যারা আছেন, তাদের পক্ষে কিছুই করা সম্ভব নয়।

এ বিষয়ে জানতে উবারের বাংলাদেশ প্রধান যুলকার নাইনের মোবাইল ফোনে কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভড করেননি। পাশাপাশি বক্তব্য দিতে বরাবরের মতো অনীহা প্রকাশ করেছে উবারের ঢাকা অফিস।

বিআরটিএ থেকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অ্যাপস হিসেবে উবার নিবন্ধন নিলেও এখনো বিআরটিএর নিয়ম-নীতির মধ্যে আসেনি। উবারের নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা এখন বিআরটিএ’র হাতে নেই। এমনকি অভিযোগ এলে সেটি অ্যাপে খতিয়ে দেখার ব্যবস্থা বিআরটিএ কর্তৃপক্ষের কাছেও হস্তান্তর করেনি উবার।

এদিকে, আন্দোলনকারী উবারের চালকেরা আট দফা দাবি জানিয়েছেন। তাদের প্রধান দাবি, ওয়েবিল অনুযায়ী যাত্রা শুরু করা থেকে শেষ পর্যন্ত মিনিট ও কিলোমিটার হিসাব করে ভাড়া দেওয়া এবং কমিশন ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১২ শতাংশ করা। এছাড়া চাহিদা বেশি দেখিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে যে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হয়, যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে উবারের সেই কৌশলেরও বিরোধী আন্দোলনকারী চালকরা।

২০১৬ সালের নভেম্বরে প্রথমবারের মতো প্রাইভেট কারে রাইড শেয়ারিং সেবা চালু করে দ্রুত ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় উবার। এর আগে ২০১৫ সালে বাংলাদেশের প্রথম মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং অ্যাপ ‘স্যাম’ (শেয়ার আ মোটরসাইকেল) যাত্রা শুরু করলে তা বন্ধ করে দিয়েছিল বিআরটিএ। এরপর কার্যক্রম শিথিল করে নেয় বিশ্বের প্রথম মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান স্যাম। উবারের যাত্রা শুরুর পর আরও অনেক কোম্পানি নামে। এখন ঢাকায় উবার, পাঠাও, সহজ, ও ভাইসহ কয়েকটি কোম্পানি রাইড শেয়ারিং সেবা দিয়ে যাচ্ছে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.