সালমান শাহর মৃত্যুর তদন্ত অব্যাহত, জানাল পুলিশ Reviewed by Momizat on . চিত্রনায়ক সালমান শাহর মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের ‘অগ্রগতির’ প্রতিবেদন আদালতে দাখিল হলেও তাতে নতুন কিছু আসেনি। ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম মাহমুদা আক্তারের আদালতে সোমবার চিত্রনায়ক সালমান শাহর মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের ‘অগ্রগতির’ প্রতিবেদন আদালতে দাখিল হলেও তাতে নতুন কিছু আসেনি। ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম মাহমুদা আক্তারের আদালতে সোমবার Rating: 0
You Are Here: Home » slider » সালমান শাহর মৃত্যুর তদন্ত অব্যাহত, জানাল পুলিশ

সালমান শাহর মৃত্যুর তদন্ত অব্যাহত, জানাল পুলিশ

77

চিত্রনায়ক সালমান শাহর মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের ‘অগ্রগতির’ প্রতিবেদন আদালতে দাখিল হলেও তাতে নতুন কিছু আসেনি।

ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম মাহমুদা আক্তারের আদালতে সোমবার দাখিল করা প্রতিবেদনে তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম বাবুল বলেছেন, তদন্ত ‘অব্যাহত রয়েছে’।

অপমৃত্যুর ঘটনা ধরে পিবিআইর তদন্ত চললেও সালমান শাহ হত্যাকাণ্ডের শিকার বলে দাবি করে আসছেন তার মা নীলা চৌধুরী। ‘আসামি’ রাবেয়া সুলতানা রুবি নামে এক নারীর সাম্প্রতিক এক ‘স্বীকারোক্তি’কে নিজের দাবির পক্ষে প্রমাণ দেখাচ্ছেন তিনি।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তার মধ‌্যে ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটন রোডে নিজের বাসা থেকে সালমান শাহর (চৌধুরী মো. ইমন) লাশ উদ্ধার করা হয়।

তখন ঘটনাটিকে আত্মহত্যা ধরে অপমৃত্যুর একটি মামলা হলেও তাতে আপত্তি জানায় তার পরিবার। তারপর বিষয়টি আদালতে ঝুলতে ঝুলতে গত বছরের ডিসেম্বরে আদালত পিবিআইকে তদন্ত করতে বলে।

তদন্তের অগ্রগতি প্রতিবেদনে সিরাজুল বলেন, সালমান শাহের মা নিলুফা চৌধুরী ওরফে নীলা চৌধুরীকে তিনি জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। সাক্ষী হিসেবে হুমায়ুন কবির, আ. সালাম, দেলোয়ার হোসেন শিকদার, আ. খালেক হাওলাদার, বাদল খন্দকার (চলচ্চিত্র পরিচালক), শাহ আলম কিরণ (চলচ্চিত্র পরিচালক), মুশফিকুর রহমান গুলজার (চলচ্চিত্র পরিচালক), এস এম আলোক সিকদার ও হারুন আর রশিদকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তিনি।

“সাক্ষীদের ঠিকানা নির্ণয়ের জন্য কতিপয় সাক্ষীর স্থায়ী ঠিকানায় অনুসন্ধান স্লিপ ইস্যু করি। রুবির ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করি। মামলাটির তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।”

সালমান শাহর ‘বিউটিশিয়ান’ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী রুবি কয়েক মাস আগে ফেইসবুকে এক ভিডিওতে বলেন, আত্মহত্যা নয়, হত্যাকাণ্ডের স্বীকার হয়েছিলেন সালমান শাহ এবং তা করিয়েছিল তারই স্ত্রী সামিরা হকের পরিবার।

এনিয়ে তুমুল আলোচনা শুরুর পর আবার নিজের ওই বক্তব্য অস্বীকার করেছিলেন এই নারী। তবে সালমান শাহর পরিবার হত্যার কথায় অনড়।

বাদী পক্ষের প্রধান আইনজীবী মাহফুজ মিয়া পিবিআইর তদন্তের অগ্রগতির প্রতিবেদনের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, “এ তদন্তে কোনো ফলই পাওয়া যাবে না।

“২১ বছর ধরেই তো তদন্ত হচ্ছে। অপমৃত্যু মামলার তদন্ত হলে তো কিছুই আসবে না। হত্যা হয়েছে বলে ১৬৪ ধারায় কত আগেই তো রিজভী আহমেদ জবানবন্দি দিয়েছে হাকিমের কাছে।

“সম্প্রতি বিদেশে বসে রাবেয়া সুলতানা রুবী তো গণমাধ্যমে হত্যার কথা ফাঁস করে দিয়েছিলেন। তবে কেন অপমৃত্যুর ফালতু তদন্ত? হত্যার তদন্ত চাই আমি।”

সালমান শাহর মৃত্যুর এক বছর ১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই তার বাবা কমরউদ্দিন আহমদ চৌধুরী হত্যার অভিযোগ তুলে অপমৃত্যুর মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত করার আবেদন জানিয়েছিলেন।

তখন অপমৃত্যুর মামলার সঙ্গে হত্যাকাণ্ডের অভিযোগের বিষয়টি একসঙ্গে তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। ১৯৯৭ সালের ৩ নভেম্বর আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়ে সিআইডি জানায়, তারা আত্মহত্যার আলামতই পেয়েছে।

সিআইডির প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে কমরউদ্দিন রিভিশন মামলা করেন। ২০০৩ সালের ১৯ মে মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তে পাঠায় আদালত। এরপর প্রায় ১২ বছর মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তে ছিল। এর মধ্যে কমরউদ্দিন মারা গেলে মামলাটি চালিয়ে যান নীলা চৌধুরী, যিনি এখন যুক্তরাজ্যে রয়েছেন।

২০১৪ সালের ৩ আগস্ট ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের কাছে বিচার বিভাগীয় তদন্তের প্রতিবেদন দাখিল করেন মহানগর হাকিম ইমদাদুল হক। তাতে অপমৃত্যুর কথাই বলা হয়।

নীলা চৌধুরী বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রতিবেদনও প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি ২০১৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম জাহাঙ্গীর হোসেনের আদালতে ওই প্রতিবেদনের বিষয়ে ‘নারাজি আবেদন’ দাখিল করেন।

তখন হত্যাকাণ্ডের আসামি হিসেবে সালমানের স্ত্রী সামিরা, তার মা লতিফা হক লুসি, ব্যবসায়ী ও চলচ্চিত্র প্রযোজক আজিজ মোহাম্মদ ভাই, রুবি, রিজভী আহমেদ ওরফে ফরহাদ, সহকারী নৃত্যপরিচালক নজরুল শেখ, ডেভিড, আশরাফুল হক ডন, মোস্তাক ওয়াইদ, আবুল হোসেন খান ও গৃহকর্মী মনোয়ারা বেগমের নাম উল্লেখ করেন নীলা চৌধুরী।

আদালত নারাজি আবেদনটি মঞ্জুর করে র‌্যাবকে দিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেয়। এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ গত বছরের ১৯ এপ্রিল আদালতে আবেদন করলে তা বাতিল হয়। এরপর পিবিআইকে দেওয়া হয় তদন্তভার।

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7902

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top