The news is by your side.

রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে অন্তর্বর্তী ট্রাইব্যুনাল দরকার: ইয়াং হি লি

0 175

 

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে পরিচালিত নির্যাতনের দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করতে নতুন একটি অ্যাডহক আন্তর্জাতিক আদালত স্থাপন করা উচিত বলে মনে করেন মিয়ানমারের মানবাধিকার বিষয়ে জাতিসংঘের বিশেষ র‌্যাপোর্টিয়ার  ইয়াং হি লি।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) পাঁচ দিনের সফর শেষে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ওই ট্রাইব্যুনাল কেমন হবে, সে বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি বলেন, আগামী মার্চে জেনেভাতে জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলে আমি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেশ করবো। সেখানে আমি এ বিষয়ে বিস্তারিত লিখবো।

তিনি আরও বলেন, অতীতে রুয়ান্ডা, বসনিয়া-হারজিগোভিনিয়াসহ বিভিন্ন জায়গায় যেসব ট্রাইব্যুনাল হয়েছে, মিয়ানমারের ট্রাইব্যুনালটিও তেমন ধরনের হবে।

বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের বিষয়ে ইয়াং হি লি বলেন, আমি এ বিষয়ে কী হবে তা নিয়ে কোনও ধারণা করতে চাই না। তবে আমি এতটুকু বলতে পারি, যে সিদ্ধান্তই হোক, মিয়ানমারের উচিত হবে তা মেনে নেওয়া। পাশাপাশি সংকট নিরসনে মিয়ানমার যাতে দায়িত্ব অবহেলা না করে, তা নিশ্চিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের দুই সদস্য চীন ও রাশিয়ার সমালোচনা করে তিনি বলেন, তাদের আচরণ লজ্জাজনক। নিরাপত্তা পরিষদে তাদের প্রতি যে দায়িত্ব ছিল, তা পালনে তারা ব্যর্থ হয়েছে।

গণহত্যাসহ সব ধরনের নিপীড়নের হাত থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে সুরক্ষায় অন্তর্বর্তী ব্যবস্থার বিষয়ে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) বিচার চলছে। আজই সেই আদালতের অন্তর্বর্তী আদেশ ঘোষিত হবে। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মিয়ানমার সরকারের দীর্ঘ কয়েক দশকের জাতিগত বৈষম্য ও নিপীড়ন এবং ২০১৭ সালের সেনা অভিযানের পটভূমিতে গাম্বিয়া এই সুরক্ষার আবেদন করে।

রোহিঙ্গাদের ওপর পরিচালিত গণহত্যা ও নির্যাতনের বিষয়ে আইসিজে ছাড়াও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) ও আর্জেন্টিনার ডমেস্টিক কোর্টে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা চলছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.