The news is by your side.

যে কোন সময়ের চেয়ে সুশৃঙ্খল ও সুসংগঠিত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ

রাজনীতির হাল-চাল

0 874

 

 

বিশেষ প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের রাজনীতির অন্যতম বৃহৎ শক্তি ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ। বর্তমানে উত্তর ও দক্ষিণ দুই ভাগে বিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ।
২০ ও ২১ ডিসেম্বর জাতীয় কাউন্সিলের পুর্বে মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে। কেন্দ্রীয় নির্দেশে কাউন্সিলের প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগ
৭৫ টি ওয়ার্ড নিয়ে পথ চলছে ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগ। সভাপতি আবুল হাসনাত ও সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদের নেতৃত্বে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগ গনতান্ত্রিক উপায়ে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। কেন্দ্রীয় কর্মসুচীর পাশাপাশি তারা নিয়মিত কার্যনির্বাহী সংসদের সভা ও বর্ধিত সভা পরিচালনা করছে। সক্রিয় রয়েছে প্রতিটি থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিট।
জাতীয় কাউন্সিলের পুর্বে যেকোন দিন মহানগর আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে নির্ভর‍যোগ্য সুত্র জানিয়েছে। কাউন্সিল ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতার আভাস মিলছে, তবে কোন ধরনের দ্বন্দ্ব কিংবা বিভাজন লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।
মহানগর, থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ে বিদ্যমান নেতৃত্বের পাশাপাশি অনেক নেতা ইতোমধ্যে তাদের পদ প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন। তবে খোজ নিয়ে জানা গেছে নগর আওয়ামী লীগে কোন গ্রুপিং কিংবা বিভাজন নেই।

বর্তমানে সভাপতি আবুল হাসনাতসহ বেশ কয়েকজন সহ-সভাপতি পরবর্তী মেয়াদে সভাপতি পদ প্রত্যাশী। অপরদিকে সাধারণ সম্পাদক পদেও একাধিক নেতা তাদের প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ খোলামেলা আলাপচারিতায় জানান- কে সভাপতি হবেন, কে সাধারণ সম্পাদক হবেন তা কাউন্সিলে নির্ধারিত হবে। নিজেকে আওয়ামী লীগের একজন কর্মী উল্লেখ করে শাহে আলম মুরাদ বলেন, “দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাই ঠিক করবেন সংগঠনের পরবর্তী নেতৃত্ব। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগ যেকোন সময়ের চেয়ে সুশৃঙ্খল, সুসংগঠিত বলেও দাবী করেন শাহে আলম মুরাদ।

সুত্র নিশ্চিত করেছে, ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সভাপতি , সাধারণ সম্পাদকসহ কোন নেতার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত দূর্নীতি, অনিয়ম কিংবা সংগঠন বিরোধী কার্যক্রমের কোন অভিযোগ নেই। থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মীরাও দৃশ্যমান কোন গ্রুপিং এ জড়িত নেই। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশে নগর সভাপতি আবুল হাসনাত ও সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদের নেতৃত্বে তারা ঐক্যবদ্ধ।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক সাদেক খানের নেতৃত্বে সংগঠিত রয়েছে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ। সংগঠিত রয়েছে থানা ও ওয়ার্ডের নেতা কর্মীরা। কাউন্সিল নিয়ে উৎসাহ উদ্দীপনা থাকলেও পদ নিয়ে গ্রুপিং রয়েছে, এখন পর্যন্ত এমন কোন খবর পাওয়া যায় নি।

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.