মুশফিক ঝড়ে কাঁপলো লঙ্কা Reviewed by Momizat on . ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে হার এবং হারের ধরণে সমালোচনার আগুনে পুড়ছিলেন মাহমুদুল্লাহ-মুশফিকরা। দগ্ধ হচ্ছিলেন অন্তঃজ্বালায়। ব্যাটসম্যানরা পুড়ছিলেন প্রতিপক্ষ বোল ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে হার এবং হারের ধরণে সমালোচনার আগুনে পুড়ছিলেন মাহমুদুল্লাহ-মুশফিকরা। দগ্ধ হচ্ছিলেন অন্তঃজ্বালায়। ব্যাটসম্যানরা পুড়ছিলেন প্রতিপক্ষ বোল Rating: 0
You Are Here: Home » slider » মুশফিক ঝড়ে কাঁপলো লঙ্কা

মুশফিক ঝড়ে কাঁপলো লঙ্কা

mushfique

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে হার এবং হারের ধরণে সমালোচনার আগুনে পুড়ছিলেন মাহমুদুল্লাহ-মুশফিকরা। দগ্ধ হচ্ছিলেন অন্তঃজ্বালায়। ব্যাটসম্যানরা পুড়ছিলেন প্রতিপক্ষ বোলারদের বোলিং উত্তাপে, আর বোলাররা পুড়ছিলেন প্রতিপক্ষের আগুনে ব্যাটিংয়ে। টাইগাররা সেই দগ্ধ শরীরে কী প্রলেপটাই না দিলেন। শ্রীলংকার বিপক্ষে শুধু জয় পায়নি, রেকর্ড করে জিতেছে লাল সবুজের দল। টি২০ তে নিজেদের সর্বোচ্চ রান যেমন করেছে, তেমনি চতুর্থ সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জিতে বিশ্ব রেকর্ডের তালিকায় বাংলাদেশের নাম লিখিয়েছে।

শ্রীলংকার প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টসে হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে কুশল পেরেরা (৭৪) এবং কুশল মেন্ডিসের (৫৭) জোড়া ফিফটিতে ২১৪/৬ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে শ্রীলংকা। লংকানদের করা ২১৪ রানের জবাবে ৫ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ।

এই জয়ের মধ্য দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে দাপটের সঙ্গে ফিরেছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বাধীনবাহিনী।

শেষ দিকে জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ৮ বলে১৬ রান। এমন অবস্থায় মুশফিকুর রহিম একেকটা বাউন্ডারি মারেন আর পিনপতন নীরবতা নেমে আসে প্রায় ৩০ হাজার দর্শকে ঠাসা প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে। ডিস্ক জকি তাঁর সংগীতায়োজন বন্ধ রাখেন সাময়িক। নৈঃশব্দ্যও যে এতটা উপভোগ্য হয়, প্রেমাদাসায় না এলে বোঝা যেত না! সেটা অবশ্য বাংলাদেশিদের জন্যই।

ফ্লাডলাইটের আলোয় আলোকিত পুরো স্টেডিয়াম। অথচ কী আশ্চর্য অদৃশ্য আঁধার, প্রেমাদাসা ডুবে রইল সেই আঁধারে। জয়সূচক রানটা করে মুশফিক যখন ‘নাগিন’ হলেন, শ্রীলঙ্কানরা পারলে চোখ বুঁজে থাকে!

যখন উইকেটে গিয়েছিলেন মুশফিক, জয়ের জন্য দলের প্রয়োজন ছিল ৬৩ বলে ১১৫। পরের প্রতিটি মুহূর্তে তার মস্তিষ্ক হিসাব কষেছে নিখুঁতভাবে। তার ব্যাট কথা বলেছে সেই অঙ্ক মেলানোর সুরে। যখন যা প্রয়োজন, মুশফিকের ব্যাট উপহার দিয়েছে সেটিই।

শেষের আগের ওভারে সাব্বিরের রান আউটে বেড়েছে চাপ, তিনি আলগা করেছেন প্রদিপকে ছক্কা মেরে। শেষ ওভারে একটি বাউন্ডারি দরকার? আদায় করে নিয়েছেন দ্বিতীয় বলেই। মুশফিকে ব্যাট এদিন যেন জাদুর কাঠি।

সমীকরণটা ছিল ৩ বলে ১ রান, আজও মুশফিক! কোনো ভুল হয়নি, মুশফিক শাপমোচন করলেন ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে, বেঙ্গালুরুর সেই ম্যাচের। তারপর? খ্যাপাটে উদ্‌যাপন, সর্পনৃত্য…কত–কী!

৩৫ বলে ৭২, ৫ চার, ৪টি ছক্কা- কেবল একটি ইনিংসের ব্যবচ্ছেদ নয়; নয় শুধু কিছু সংখ্যা। এসব আসলে দারুণ আত্মবিশ্বাসের স্ফুরণ। কিছু প্রমাণের তাগিদ। একটি তীব্র আকাঙ্ক্ষার প্রাপ্তি। কিছু প্রশ্নের জবাব। আর, একই সঙ্গে দুটি জয়। দলকে জিতিয়ে মুশফিকের জয়!

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মুশফিকের এই ইনিংস হতে পারে একজন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের আদর্শ টি-টোয়েন্টি ইনিংসের ডকুমেন্টারি। এই ইনিংসই আবার উদাহরণ, একটি টি-টোয়েন্টি ইনিংস কিভাবে ছাড়িয়ে যায় টি-টোয়েন্টির সীমানা।

মুশফিকের এই ইনিংস শুধু টি-টোয়েন্টি নয়, আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে খেলা তিনশর বেশি ম্যাচ মিলিয়েই তার সেরা ইনিংসগুলোর একটি। মুশফিকের সৌজন্যে পাওয়া এই জয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেই বাংলাদেশের সেরা জয়গুলির একটি।

নিজের ক্যারিয়ার সেরা ৭২ রানের ইনিংস খেলা মুশফিকুর রহিমের কণ্ঠেও তামিম-লিটনের প্রশংসা, ‘আমাদের একটা জয় খুব করে দরকার ছিল। আমরা একটা জয় ছাড়া আর কিছুই চাইনি। এখানে ১৯০ রান তাড়া করা সম্ভব। কিন্তু লিটন এবং তামিম আমাদের হয়ে দারুণ একটা শুরু এনে দিয়েছে।’

ম্যাচ সেরার পুরষ্কার হতে নিয়ে টাইগার এই ব্যাটসম্যান বলেন, ‘দিন শেষে দলের জয়টাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’ এসময় নিজের টি২০ সেরা ইনিংসটি ৩৫ দিনের পুত্র সন্তানকে উৎসর্গ করেন মুশফিক।

শ্রীলংকার অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালও খেলোয়াড় সুলভভাবে বিবেচনা করেছেন ম্যাচটা। টি২০’র দারুণ এক ম্যাচ উল্লেখ করে চান্দিমাল বলেন, ‘বাংলাদেশের সামনে ভালো রান দাঁড় করাতে ব্যাটসম্যারা বড় অবদান রেখেছে। কিন্তু আমাদের বোলাররা পরিকল্পনা মাফিক বল করতে পারেনি। আমারা একটি কৌশল নিয়ে এগুচ্ছিলাম। কিন্তু আমরা সেটা প্রয়োগ করতে পারিনি। সামনের ম্যাচে আমরা ঘুরে দাঁড়াবো আশা করছি।’

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7902

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top