মুক্তিযোদ্ধাদের লেখায়ই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস: মুহিত Reviewed by Momizat on . মুক্তিযোদ্ধারা বই লিখলেই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস। জানা যাবে জনযুদ্ধের অজানা অনেক কাহিনী। কর্ণেল (অব.) তৌফিকুর রহমানের লেখা ‘দ্য গেরিলা’স অব ঢাকা-১৯ মুক্তিযোদ্ধারা বই লিখলেই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস। জানা যাবে জনযুদ্ধের অজানা অনেক কাহিনী। কর্ণেল (অব.) তৌফিকুর রহমানের লেখা ‘দ্য গেরিলা’স অব ঢাকা-১৯ Rating: 0
You Are Here: Home » কালস্রোত » মুক্তিযোদ্ধাদের লেখায়ই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস: মুহিত

মুক্তিযোদ্ধাদের লেখায়ই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস: মুহিত

মুক্তিযোদ্ধাদের লেখায়ই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস: মুহিত

মুক্তিযোদ্ধারা বই লিখলেই উঠে আসবে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস। জানা যাবে জনযুদ্ধের অজানা অনেক কাহিনী।

কর্ণেল (অব.) তৌফিকুর রহমানের লেখা ‘দ্য গেরিলা’স অব ঢাকা-১৯৭১’ এবং এর বাংলা ভার্সন ‘গেরিলা-১৯৭১’ গ্রন্থ দু’টির প্রকাশনা উৎসবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ কথা বলেন।

আলোচনায় অংশ নেন সেক্টর কমান্ডার মে. জে. (অব.) কেএম শফিউল্লাহ, বীর উত্তম, লে. কর্ণেল (অব.) সাজ্জাদ হোসেন জহির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সোনিয়া নিশাত ও অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদ। জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরীর সভাপতিত্বে মুক্তিযোদ্ধা ও চলচ্চিত্র নির্মাতা নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু স্বাগত বক্তৃতা প্রদান করেন। লেখক তার অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

বইটির মোড়ক উন্মোচন করে অর্থমন্ত্রী বলেন, বইটি তিনি গো-গ্রাসে পড়েছেন। প্রথম লাইন থেকে শেষ লাইন পর্যন্ত পড়েছেন। তিনি বলেন, গ্রন্থটিতে ছোট ছোট কাহিনী ও বিভিন্ন অপারেশনের ঘটনার মাধ্যমে অনেক অজানা মুক্তিযোদ্ধার কথা উঠে এসেছে। এর ফলে অনেক সাহসী, তেজদীপ্ত ও দেশপ্রেমে উজ্জীবিত মুক্তিযোদ্ধা ও কিশোর মুক্তিযোদ্ধার কথা জানা গেছে। যাদের নাম তিনি আগে কখনও শোনেন নি এবং ইতিহাসেও পাননি।
তিনি আরো বলেন, গত ১ বছরে তিনি মুক্তিযুদ্ধের যতগুলো বই পড়েছেন, তার মধ্যে এটিই শ্রেষ্ঠ।

লে. কর্ণেল (অব.) সাজ্জাদ হোসেন জহির জীবিত প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধাকে বই লেখার আহবান জানিয়ে বলেন, আপনারা আপনাদের যুদ্ধের কাহিনী ও অভিজ্ঞতা লিখুন। তাহলে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস জাতি জানতে পারবে।

তিনি বলেন, যদি আপনারা লিখতে না পারেন, তাহলে আপনাদের যুদ্ধকালীন কাহিনী সন্তানদের বা নাতি-নাতনীদের বলুন তারা লিখবে। এতে অনেক অজানা কাহিনী জানা যাবে। সঠিক ইতিহাস উঠে আসবে।

অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের কথা যখন আমরা বলি, তখন আমরা ভয়ের ও ব্যর্থতার কথা বলি না। এটা ঠিক নয়। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের যেমন সাফল্যে কথা আছে, তেমনি ব্যর্থতার কথাও আছে। যা এ বইটিতে উঠে এসেছে।

তিনি বলেন, কিছু দল ও ব্যক্তি মুক্তিযুদ্ধকে পণ্য করে ফেলেছিল, কিন্তু এ বইটি পড়ে আমি আবার মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত অনুভূতি উপভোগ করছি।

অধ্যাপক জামিল বলেন, এ বইটিতে মুক্তিযুদ্ধের দাম্ভিক বিষয় যেমন এসেছে, তেমনি এসেছে ভয় ও ব্যর্থতার কথা। আর এ কারণেই বইটিকে মুক্তিযুদ্ধের আকর গ্রন্থ বলা যায়।

নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মকথনের মাধ্যমেই আমরা মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে পারি। এ জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের এগিয়ে আসতে হবে। তাদের লিখতে হবে। এতে হয়তো বাড়াবাড়ি ও আবেগ থাকতে পারে, তবে আমরা সঠিক ইতিহাস পাব।


About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7529

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top