মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের একাংশ উদ্বোধন Reviewed by Momizat on . দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর চালু হলো রাজধানীর মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের একাংশ। বুধবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্লাইওভ দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর চালু হলো রাজধানীর মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের একাংশ। বুধবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্লাইওভ Rating: 0
You Are Here: Home » slider » মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের একাংশ উদ্বোধন

মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের একাংশ উদ্বোধন

1232

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর চালু হলো রাজধানীর মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের একাংশ। বুধবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে

বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্লাইওভারের রমনা থেকে তেজগাঁও সাতরাস্তা পর্যন্ত অংশ উদ্বোধন করেন।
প্রধানমন্ত্রী তেজগাঁও অংশে উদ্বোধনের ফলক উন্মোচন করে ফ্লাইওভারের ওপর দিয়ে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল প্রান্তে পৌঁছান। এরপর অফিসার্স ক্লাবে মূল অনুষ্ঠানে ফ্লাইওভারের এ অংশের উদ্বোধনী ঘোষণা করেন তিনি।
এসময় এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশারফ হোসেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হক ও  দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পরপরই ফ্লাইওভারের প্রথম অংশটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়, যার মধ্য দিয়ে  মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের তেজগাঁও থেকে হলিফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত অংশটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত হল।

এদিকে নবনির্মিত ফ্লাইওভারে চলাচলরত যানবাহনের বাড়তি চাপ মোকাবেলায় অর্থাৎ ওই এলাকায় যানবাহন নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক প্রস্ততি নিয়েছে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল ট্রাফিক জোন।

গাড়ির গতি প্রকৃতি নির্ণয়, লেন বিভাজন এবং ফ্লাইওভারে চলাচলরত যানবাহনের গতি প্রকৃতি সম্পর্কে নগরবাসীকে সচেতন করতে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল ট্রাফিক জোন বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।

mogbazar flyover
প্রকল্প পরিচালক নাজমুল আলম জানান, নির্মাণাধীন মগবাজার-মৌচাক পুরো ফ্লাইওভার তিন ধাপে চালু হওয়ার কথা রয়েছে।
 প্রথম ধাপে আজ ফ্লাইওভারটির হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল থেকে সাতরাস্তা পর্যন্ত ২.১১ কিলোমিটার অংশ যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হলো। বাকি কাজের মধ্যে হাতিরঝিল থেকে এফডিসি অংশের র‌্যাম্পটির নির্মাণ কাজ দ্রুতই শেষ হবে জানান এই ফ্লাইওভারের প্রকল্প পরিচালক। তিনি আরও জানান  বাংলামোটর থেকে মৌচাক অংশ আগামী জুনে খুলে দেওয়া হবে। আর বাকি অংশটুকু ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির মধ্যে খুলে দেওয়ার জন্য সব ধরনের চেষ্টা করা হচ্ছে।

মৌচাক-মগবাজার ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করা হয় ২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি। দুই বছরের মধ্যে নির্মাণ শেষ করার কথা ছিল। নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ না হওয়ায় এর সময় বাড়ানো হয়েছে ২০১৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত।

ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করছে ভারতের সিমপ্লেক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেড ও নাভানার যৌথ উদ্যোগের প্রতিষ্ঠান ‘সিমপ্লেক্স নাভানা জেভি’, চীনা প্রতিষ্ঠান দ্য নাম্বার ফোর মেটালার্জিক্যাল কনস্ট্রাকশন ওভারসিজ কোম্পানি (এমসিসিসি) ও তমা কনস্ট্রাকশন লিমিটেড। সব কাজ তত্ত্বাবধান করছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ।

প্রকল্পটির নির্মাণ ব্যয়ের সাতশ’ ৭২ কোটি ৭০ লাখ টাকার মধ্যে সরকার দিচ্ছে দুশ’ কোটি ৪৭ লাখ, সৌদি ফান্ড ফর ডেভেলপমেন্ট তিনশ’ ৭৫ কোটি ২৫ লাখ এবং ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট দিচ্ছে একশ’ ৯৬ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

ঢাকার যানজট নিরসনে ১৯৯৯ সালের ঢাকা ট্রান্সপোর্ট কো-অর্ডিনেশন বোর্ডের (ডিটিসিবি) সমীক্ষা অনুযায়ী ২০টি পয়েন্টে ফ্লাইওভার/আন্ডারপাস, বাস বে, বাস টার্মিনাল, পার্কিং এরিয়া নির্মাণের প্রস্তাব করা হয়েছিল।

তারই অংশ হিসেবে মহাখালী ও খিলগাঁও ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হয়।

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7211

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top