পূর্ণ তদন্ত ও খুনিদের বিচার চায় ইইউ Reviewed by Momizat on . নিজস্ব প্রতিবেদক বাংলাদেশে সম্প্রতি সংঘটিত নির্মম হত্যাকাণ্ডের পূর্ণ তদন্ত ও প্রকৃত খুনিদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) নিজস্ব প্রতিবেদক বাংলাদেশে সম্প্রতি সংঘটিত নির্মম হত্যাকাণ্ডের পূর্ণ তদন্ত ও প্রকৃত খুনিদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) Rating: 0
You Are Here: Home » slider » পূর্ণ তদন্ত ও খুনিদের বিচার চায় ইইউ

পূর্ণ তদন্ত ও খুনিদের বিচার চায় ইইউ

Xulhaz-Mannan_Tanay-Combo

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশে সম্প্রতি সংঘটিত নির্মম হত্যাকাণ্ডের পূর্ণ তদন্ত ও প্রকৃত খুনিদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

মঙ্গলবার রাতে ইউরোপীয় দেশগুলোর ওই জোটের সদরদফতর ব্রাসেলস থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়।

জোটের মুখপাত্রের দেয়া ওই বিবৃতিতে মৌলিক মানবাধিকার হিসেবে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা ও শ্রদ্ধাবোধে উৎসাহ দিতেও সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

গত সোমবার বিকেলে সমকামীদের অধিকারকর্মী ও ইউএসএ আইডির কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নানকে রাজধানীর কলাবাগানে তার নিজ বাসায় বন্ধু মাহবুব তনয়সহ কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ওই বাড়ির নিরাপত্তাকর্মী ও পুলিশের একজন সদস্যও আহত হন।

এ জোড়া খুনের ঘটনায় ‘দায় স্বীকার’ করেছে আল-কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশের (একিউআইএস) কথিত বাংলাদেশ শাখা ‘আনসার আল ইসলাম’। তবে এই দাবিকে ‘ভিত্তিহীন’ বলছেন গোয়েন্দারা।

এর আগে চলতি মাসের ২৩ এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকি ও ৬ এপ্রিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ছাত্র নাজিমুদ্দিন সামাদকে কুপিয়ে হত্যার বিষয়টিও ইইউ-এর বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

হিজড়া ও সমকামীদের অধিকার আদায়ের দাবিতে সোচ্চার জুলহাজ দেশে সমকামীদের প্রথম ও একমাত্র সাময়িকী ‘রূপবানের’ একজন সম্পাদক ছিলেন। আর ‘লোকনাট্য দলের’ কর্মী তনয় একটি প্রতিষ্ঠানে ‘শিশু নাট্য প্রশিক্ষক’ হিসেবে কাজ করতেন।

গত এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে বাংলাদেশে তৃতীয়বারের মতো সহিংস হামলার ঘটনা ঘটল উ্ল্লেখ করে সব নাগরিকের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার বিষয়টিও সমানভাবে জরুরি বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর শোক জানানোর পাশাপাশি বিবৃতিতে আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করা হয় ইইউয়ের পক্ষ থেকে।

এদিকে ইউএসএআইডি কর্মী জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব রাব্বী তনয় হত্যাকান্ডে আল-কায়েদা ভারতীয় উপমহাদেশ (একিউআইএস) শাখার দায় স্বীকারের যে খবর প্রকাশিত হয়েছে, তার সত্যতা সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত নয় যুক্তরাষ্ট্র।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ওয়াশিংটনে প্রেস ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের উপ-মুখপাত্র মার্ক টোনার বলেন, এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার মতো কোনো কারণ এখনো আমরা পাইনি। এটাই যে তাদের হত্যার কারণ নয়, এটা মনে করার কোনো কারণও আমরা দেখছি না।

সোমবার রাজধানী কলাবাগানের বাসায় ঢুকে ইউএসএইডের কর্মকর্তা ও সমকামীদের অধিকার নিয়ে প্রতিষ্ঠিত ‌’‌রূপবান’ এর সম্পাদক জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

মঙ্গলবার টুইটারে আল-কায়েদা ভারতীয় উপমহাদেশের (একিআইএস) কথিত বাংলাদেশ শাখা ‘আনসার আল ইসলাম’ এই হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের উপ মুখপাত্র মার্ক টোনার মঙ্গলবার ওয়াশিংটনে প্রেস ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, “এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার মতো কোনো কারণ এখনো আমরা পাইনি।”

সোমবার বিকালে কলাবাগানের লেক সার্কাস এলাকায় বাসায় ঢুকে জুলহাজ  ও তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী ওয়েবসাইট সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ পরদিন জানায়, একিউআইএস এক টুইটে এই হত্যার দায় স্বীকার করেছে।

একিউআইএসের কথিত বাংলাদেশ শাখা আনসার আল ইসলামের মুখপাত্র মুফতি আব্দুল্লাহ আশরাফের নামে ওই টুইটে বলা হয়, ‘বাংলাদেশে সমকামিতা প্রসারে’ কাজ করায় ‘মুজাহিদিনরা’ ওই দুজনকে হত্যা করেছে।

ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সাবেক প্রটোকল অ্যাসিসটেন্ট জুলহাজ সমকামী অধিকার বিষয়ক সাময়িকী ‘রূপবান’ সম্পাদনায় যুক্ত ছিলেন। আর তার বন্ধু তনয় লোকনাট্য দলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

“এটাই যে তাদের হত্যার কারণ নয়, এটা মনে করার কোনো কারণও আমরা দেখছি না,” বলেন মার্ক টোনার।

গত দুই বছর ধরে একের পর এক ব্লগার, লেখক, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ও ধর্মীয় ভিন্নমতাবলম্বী খুন হওয়ার প্রেক্ষাপটে ঢাকায় সমকামী অধিকার কর্মী খুন হওয়ার এই খবর  নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও আলোচনা চলছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাজ্য ও জার্মানি এ হত্যাকাণ্ডের সমালোচনা করে খুনিদের বিচারের মুখোমুখি করার আহ্বান জানিয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে এসব হত্যাকাণ্ডের পর প্রতিটি ক্ষেত্রে আইএস বা আল কায়েদার নামে দায় স্বীকারের বার্তা এসেছে। তবে সরকার বলে আসছে, বাংলাদেশে ওই ধরনের কোনো আন্তর্জাতিক জঙ্গি দলের কার্যক্রম নেই; এসব হত্যা স্থানীয় উপ্রপন্থি দলের কাজ।

ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গিয়ে মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে দেখা করে সাম্প্রতিক এসব হত্যাকাণ্ড নিয়ে তার সরকারের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আসেন।

ওই বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “বাংলাদেশে যেসব হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, তার সবগুলোরই নিন্দা জানায় যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু (দূতাবাসের সাবেক কর্মকর্তা) জুলহাজের ঘটনাটি ব্যক্তিগত বিষয়ও বটে।”

এসব হত্যাকাণ্ডের তদন্তে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত বলেও জানান বার্নিকাট।

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7211

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top