The news is by your side.

পাকিস্তানের সেমিফাইনাল থামাতে বাংলাদেশের কাছে হারবে ভারত ! বাসিত আলি

0 5

 

 

 

ভারতের কাছে লজ্জার হারের শোক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি পাকিস্তান। সেমিফাইনালে উঠতে বাকি সব ম্যাচ জিততেই হবে সরফরাজদের। পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে অন্য ম্যাচগুলির দিকেও। এই অবস্থায় প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার বাসিত আলির একটি মন্তব্যে প্রবল বিতর্ক শুরু হয়েছে।

‘‘পাকিস্তানকে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে উঠতে দেবে না ভারত। সেই জন্য ইচ্ছা করে বাংলাদেশের কাছে হারবে ওরা।’’ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের জয় দেখার পরে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার বাসিত আলি। সরাসরি আঙুল তুললেন ভারতের দিকে।

এক সময়ে বলা হত, জাভেদ মিয়াঁদাদের শূন্যস্থান পূরণ করবেন বাসিত। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের জন্য বিখ্যাত ছিলেন তিনি। ১৯৯৩-৯৬ পর্যন্ত পাকিস্তান জাতীয় দলের নিয়মিত সদস্য ছিলেন বাসিত। ম্যাচ ফিক্সিংয়ের জন্য নির্বাসিত হন তিনি।

বাসিত বলছেন, ‘‘১৯৯২ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড তাদের সেরাটা দেয়নি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।’’ কারণ হিসেবে এই পাক ব্যাটসম্যান বলেন, ‘‘ঘরের মাঠে খেলার সুযোগ নেওয়ার জন্যই সে বার নিউজিল্যান্ড নিজেদের সবটা উজাড় করে দেয়নি।’’ বাসিতের দাবি, ইমরান খানও জানতেন কিউয়িরা ইচ্ছা করেই নিজেদের একশো শতাংশ দেয়নি।

বৃহস্পতিবার ম্যাঞ্চেস্টারে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারানোয় কার্যত শেষ চারে পৌঁছে গিয়েছে ভারত। তাই বাকি ম্যাচগুলোর সেই ভাবে গুরুত্ব আর থাকছে না ভারতের কাছে। কিন্তু, পাকিস্তান বা বাংলাদেশকে শেষ চারে পৌঁছতে গেলে বাকি সব ম্পাযাচ জিততেই হবে।

পাকিস্তান ও বাংলাদেশের বাকি রয়েছে এখনও দুটো করে ম্যাচ। শেষ চারে যাওয়ার অঙ্ক জমে গিয়েছে। বাসিতের দাবি, ‘‘বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারত এমন ভাবে খেলবে, যাতে ওদের হারটা দৃষ্টিকটু না দেখায়।’’ বাসিত আরও বলেছেন, ‘‘ভারতের মুখাপেক্ষী যেন না হয় পাকিস্তান। বাকি ম্যাচগুলো জিততেই হবে ছেলেদের। নিজেদের দক্ষতার উপরে আস্থা রাখতে হবে।’’

দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে টানা দুটো ম্যাচ জিতে আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে সরফরাজ বাহিনীর। বাকি ম্যাচগুলো জিতে পাকিস্তান শেষ চারে পৌঁছতে পারে কি না, তার জবাব দেবে সময়। তবে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারের এ হেন মন্তব্য বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বাসিতের তুমুল সমালোচনা করেছেন ভারতীয় ফ্যানেরা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.