না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন : প্রিয় হাসিমুখ দিতি Reviewed by Momizat on .       দীর্ঘদিন ক্যানসারের সঙ্গে যুদ্ধ করে অবশেষে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন নন্দিত চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পারভীন সুলতানা দিতি।  রবিবার বিকেল ৪টা ৫ মি       দীর্ঘদিন ক্যানসারের সঙ্গে যুদ্ধ করে অবশেষে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন নন্দিত চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পারভীন সুলতানা দিতি।  রবিবার বিকেল ৪টা ৫ মি Rating: 0
You Are Here: Home » slider » না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন : প্রিয় হাসিমুখ দিতি

না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন : প্রিয় হাসিমুখ দিতি

diti_7468

 

 

 

দীর্ঘদিন ক্যানসারের সঙ্গে যুদ্ধ করে অবশেষে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন নন্দিত চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পারভীন সুলতানা দিতি।  রবিবার বিকেল ৪টা ৫ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না…রাজিউন)।

ইউনাইটেড হাসপাতালের মিডিয়া মুখপাত্র ডা. সাগুফতা গণমাধ্যমকে খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

মস্তিষ্কে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ায় গত বছরের ২৫ জুলাই থেকে ভারতের চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন দিতি। মাঝে কিছুটা সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে আসেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে গত বছরের নভেম্বরে আবারও একই হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় তাঁকে। বেশ কিছুদিন চিকিৎসাধীন থাকার পরও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় ৮ জানুয়ারি এ অভিনেত্রীকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়। দেশে ফেরার পরপরই তাঁকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে।

আশির দশকের শেষের দিক আর নব্বইয়ের শুরুতে ঢালিউডের শুধু পরিচিত মুখই ছিলেন না দিতি; বলা চলে  সে সময় ঢালিউডের একচ্ছত্র অধিকারী হয়ে উঠেছিলেন তিনি।86226cbff2be318ee3268c04097a98a8-

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে প্রথমবারের মতো ১৯৮৪ সালে নতুন মুখের সন্ধানে নামে একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। চলচ্চিত্রে নতুন শিল্পীদের আগমন সহজ করার জন্য এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৮৪ সালে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে চলচ্চিত্র জগতে আসেন পারভিন সুলতানা দিতি।

উদয়ন চৌধুরি পরিচালিত ‘ডাক দিয়ে যাই’ সিনেমার মাধ্যমে প্রথম রূপালি ভুবনে পা রাখেন তিনি। তবে ছবিটি মুক্তি পায়নি। তার  অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র ‘আমিই ওস্তাদ’। ছবিটির পরিচালক ছিলেন আজমল হুদা মিঠু। এ ছবিতে দিতির অনবদ্য অভিনয় দর্শকদের বেশ নজর কাড়ে। এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি অভিনেত্রী দিতিকে। দর্শকের মন জয় করে নেন সুন্দরী ও সুঅভিনেত্রী দিতি। পর পর বেশ কয়েকটি ছবি মুক্তি পায় তার, পায় বাণিজ্যিক সাফল্য। কবরী, আফজাল হোসেন ও দিতি অভিনীত ‘দুই জীবন’ ছবিটি বাণিজ্যিকভাবে সফল হয়।

১৯৮৫ সালে আমজাদ হোসেন পরিচালিত ‘হীরামতি’ ছবিতে কাজ করার সময় সহশিল্পী সোহেল চৌধুরীর প্রেমে পড়েন। ওই বছরই তারা ঘর বাঁধেন।

আশি ও নব্বইয়ের দশকের শুরুতে ইলিয়াস কাঞ্চন-দিতি জুটি ছিল বাণিজ্যিকভাবে দারুণ সফল। জাফর ইকবালের বিপরীতেও দিতি সাফল্য পেয়েছিলেন।

দর্শকদের বহু জনপ্রিয় চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন ঢাকার সিনেমার সোনালি যুগের এ নায়িকা। ৩১ বছরের অভিনয়জীবনে দুই শতাধিক ছবিতে কাজ করেছেন দিতি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে আছে এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘হীরামতি’, ‘দুই জীবন’, ‘ভাই বন্ধু’, ‘উছিলা’, ‘লেডি ইন্সপেক্টর’, ‘খুনের বদলা’, ‘দুর্জয়’, ‘আজকের হাঙ্গামা’, ‘স্নেহের প্রতিদান’, ‘শেষ উপহার’, ‘চরম আঘাত’, ‘স্বামী-স্ত্রী’, ‘অপরাধী’, ‘কালিয়া’, ‘কাল সকালে’, ‘মেঘের কোলে রোদ’, ‘আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা’, ‘মুক্তি’, ‘কঠিন প্রতিশোধ’, ‘জোনাকীর আলো’, ‘তবুও ভালোবাসি’, ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী’, ‘হৃদয় ভাঙা ঢেউ’, ‘মাটির ঠিকানা’, ‘নয় নম্বর বিপদ সংকেত’ ও ‘সুইটহার্ট। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘ধূমকেতু’ ছবিটি।  ১৯৮৭ সালে সুভাষ দত্ত পরিচালিত ‘স্বামী-স্ত্রী’ ছবিতে অভিনয়ের সুবাদে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয় করেন দিতি। এ ছবিতে তার বিপরীতে ছিলেন আলমগীর| আশির দশকের শেষ দিকে দিতি ছিলেন তরুণীদের ফ্যাশন আইকন। তার সাজ পোশাক দারুণ জনপ্রিয়তা পায় ভক্ত-দর্শকদের মধ্যে।

পারভিন সুলতানা দিতি অভিনয়ের গণ্ডি অতিক্রম করে পাড়ি দিয়েছেন নাটকে, পরিচালনায়, সঙ্গীত আর বিজ্ঞাপনের মডেলিংয়ে। ওপার বাংলায়ও অভিনয় করেছেন তিনি। নায়ক প্রসেনজিতের সঙ্গে অভিনয় করেছেন ‘প্রিয় শত্রু’ সিনেমায়। ছবিটির ‘চিঠি কেন আসে না আর দেরি সহে না’ শিরোনামের গানটি তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল সেই সময়।

দুই যুগেরও বেশি সময় আগে অনুপম রেকর্ডিং মিডিয়ার ব্যানারে দিতির প্রথম একক অ্যালবাম ‘তোমার ও চোখে’ বাজারে আসে। এরপর মাঝে দু-একটি চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করলেও দীর্ঘদিন আর কোনো অ্যালবাম প্রকাশ করেননি তিনি। ২০১১ আবার সালে লেজার ভিশনের ব্যানারে বাজারে আসে তার দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘ফিরে যেন আসি’।

কোটি ভক্ত, সহকর্মী ও অনুরাগীকে ছেড়ে বুধবার চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী এ অভিনেত্রী চলে গেলেন না ফেরার দেশে। অভিনয়ের মাধ্যমে জীবনের আলো ছড়ানো দিতি চলে গেছেন এক অচেনা জগতে।

তবে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অদ্বিতীয়া এই শিল্পী চিরদিন বেঁচে থাকবেন তার ভক্তদের স্মরণের মণিকোঠায়।

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7237

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top