The news is by your side.

নতুন সড়ক আইন বাস্তবসম্মত নয়: মির্জা ফখরুল

0 178

 

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নতুন সড়ক পরিবহন আইনটি বাস্তবসম্মত নয়। এটিকে আরো গুরুত্ব দিয়ে সংশ্লিষ্ট স্টক হোল্ডারদের নিয়ে আলোচনায় বসে এই আইন প্রনয়ণ করা উচিত ছিল। তাহলে আজ এই সংকট তৈরি হতো না।

বুধবার সকালে ঠাকুরগাঁও শহরের কালীবাড়িস্থ পৈতৃক বাস ভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

সড়ক আইন ও যান চলাচল বন্ধ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, সমস্যাটা হলো সরকার তো মনে করে না এসব বিষয়ে কারও সঙ্গে আলোচনা করার প্রয়োজন আছে। সড়ক আইনটি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে আলোচনা করে বাস্তবায়ন করা উচিত। আইন শক্ত হওয়া উচিত। পাশাপাশি আইনের প্রয়োগও থাকতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার তাদের ব্যর্থতা দিয়ে আর কত ইস্যু সৃষ্টি করবে? একটা সরকার যখন জনগণের ভোট ছাড়া নির্বাচিত হয়, তখন সর্বক্ষেত্রে তার ব্যর্থতাগুলো ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসতে থাকে। যারা পুলিশ প্রশাসন বা অন্যান্য বাহিনী দিয়ে রাষ্ট্রযন্ত্র নিয়ন্ত্রণ করতে চায়, ধীরে ধীরে সেই নিয়ন্ত্রণ তাদের হাতের বাইরে চলে যায়।

তিনি আরো বলেন, এই সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় ব্যর্থ হয়েছে। তাই দেশে এ সময়ে চাল, পেয়াঁজ-লবণ সংকট দেখা দিয়েছে। দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে সরকার। কোথাও আইনের সুশাসন নেই। দুঃশাসনের যাতাকলে সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। এই পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণের একমাত্র উপায় গণঅভ্যুত্থান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকার চায় না খালেদা জিয়া জেল থেকে বাইরে আসুক। কৌশলে খালাদে জিয়াকে আটক করে রেখেছে তারা।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘খালেদা জিয়া দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা। তিনি গণতন্ত্রমনা জনগণকে প্রতিনিধিত্ব করেন। খালেদা জিয়া কারাগার থেকে বের হলে, দেশে যে সংকট রয়েছে, তা কাটানো সম্ভব হতো। সরকার যদি খালেদা জিয়ার সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে, তাঁর পরামর্শ নেয়, তবে দেশ সংকট থেকে মুক্তি পেতে পারত।’

বিএনপি থেকে নেতা-কর্মীদের দলত্যাগ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি একটি স্রোতস্বিনী নদী—পদ্মা, মেঘনা, যমুনার মতো। এখানে কথনো কথনো জল এসে পড়ে। আবার কখনো কখনো চলে যায়। তাতে পদ্মা, মেঘনা, যমুনার কোনো ক্ষতি হয় না। বিএনপিরও তেমনি। অনেক লোক এসেছে-গেছে। এরপরও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপি আবার ক্ষমতায় আসবে।

দলের ভেতর নিজের সমালোচনা নিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি একটা গণতান্ত্রিক দল। দলের মধ্যে এসব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হতেই পারে। এটা একটা গনতন্ত্রের অংশ। তা না হলে বিএনপি তো বন্ধতার মধ্যে পড়বে।

আজ মির্জা ফখরুলের বাসভবনে এই অনানুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমিন, সহসভাপতি নুর ই শাহদাৎ, সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ, জেলা যুবদলের সহসাধারণ সম্পাদক মাহবুব হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.