The news is by your side.

দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই আওয়ামী লীগে : কাদের

0 224

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই। গুটিকয়েক খারাপ লোকের জন্য গোটা দল বদনামের ভাগিদার হবে না। যারা অন্তঃকলহ করবে, অপকর্ম করবে, দুর্নীতি করবে- তাদের এ দলে স্থান হবে না।’

বুধবার চট্টগ্রাম নগরীর কেবি কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রামসহ সারাদেশে বিভিন্ন উন্নয়ন হচ্ছে। দলের কারও একটা খারাপ আচরণের কারণে ১০টা উন্নয়ন ম্লান হয়ে যেতে পারে। আমরা পরিবর্তন চাই, কিন্তু সেই পরিবর্তন চাই না যে পরিবর্তন আওয়ামী লীগকে আদর্শের শিকড় থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। শিকড়ের সঙ্গে আদর্শ বিস্তৃত। সরকারের ভিশন ২০২১ এবং ২০৪১ বাস্তবায়নে যারা কাজ করবে তাদের চরিত্র হারালে চলবে না। দলে ট্র্যাডিশনের সঙ্গে টেকনোলজির সমন্বয়ে গুণগত পরবির্তন আনতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। অপকর্মকারীদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান চলমান রয়েছে। পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থায় যারা কলহপ্রিয়, দুর্নীতিবাজ, ভূমিদস্যু, অপকর্মকারী- তাদের অপকর্মের দায় দল নেবে না। খারাপ লোকের জন্য দলের ভাবমূর্তি বিনষ্ট হলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর রাজনৈতিক জীবনের বিভিন্ন দিক স্মরণ করে তিনি বলেন, যারা রাজনীতিকে মানি মেকিং মেশিন মনে করে, টাকা দিয়ে যারা পদ বেচাকেনার রাজনীতিতে বিশ্বাসী, তাদের কাছ থেকে আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুরা যোজন যোজন দূরে থাকতেন।

স্মরণসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, রাজনীতিকে যারা অর্থ দিয়ে গিলতে চান তারা বাবু ভাইয়ের কাছে রাজনীতি শিখুন। অর্থ-বিত্তের মধ্যে থেকে তিনি কিভাবে সাধারণ জীবনযাপন করেছেন তা তার কাছে শেখা যায়।

তিনি আরও বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পর আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে যখন দল বিপর্যস্ত তখন আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু দলের হাল ধরেছিলেন। তখন জননেত্রী শেখ হাসিনার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন, সারাদেশে আওয়ামী লীগকে প্রতিষ্ঠিত করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন। দলের নেতাকর্মীদের তার মতো নেতাকে অনুসরণ করতে হবে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় স্মরণসভায় আরও বক্তব্য রাখেন- প্রয়াত আখতারুজ্জামান বাবুর জ্যেষ্ঠপুত্র ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম প্রমুখ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.