জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সুরকার আলী আকবর রুপু Reviewed by Momizat on . দেশের বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আলী আকবর রুপু এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে দেশের বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আলী আকবর রুপু এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে Rating: 0
You Are Here: Home » বিনোদন » জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সুরকার আলী আকবর রুপু

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সুরকার আলী আকবর রুপু

rupu

দেশের বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আলী আকবর রুপু এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, তাঁকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।

গত ৯ ফেব্রুয়ারি রুটিনমাফিক ডায়ালাইসিস করার সময় হঠাৎ তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েন। অবস্থার অবনতি ঘটলে সেদিনই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আলী আকবর রুপুর মেয়ে ফারিয়া নাজ আপন আজ সোমবার বিকেলে জানান, তাঁরা বাবা অনেক দিন থেকেই হৃদ্রোগে ভুগছেন। তাঁর কিডনির সমস্যা শুরু হয়েছে। মাস সাতেক ধরে তাঁর কিডনির ডায়ালাইসিস করা হচ্ছে। গত শুক্রবার ডায়ালাইসিস করার সময় তাঁর স্ট্রোক হয়। পাশাপাশি হৃদ্রোগে আক্রান্ত হন রুপু। এ অবস্থায় অচেতন অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ফারিয়া নাজ আপন আরও জানান, হাসপাতাল থেকে আলী আকবর রুপুকে ভেন্টিলেশন সাপোর্ট দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পরিবারের সদস্যরা তাতে রাজি হননি।

rupu1

 

দুই যুগ ধরে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র গানের সুর করছিলেন তিনি। উপহার দিয়েছেন বহু শ্রোতাপ্রিয় গান। উল্লেখযোগ্য গানের তালিকায় রয়েছে সাবিনা ইয়াসমিনের ‘প্রতিটি শিশুর মুখে হাসি’, এন্ড্রু কিশোরের ‘পদ্ম পাতার পানি নয়’, মুরাদের ‘আমি আগের ঠিকানায় আছি’ প্রভৃতি।

রুপুর শুরুটা গিটারিস্ট ও কিবোর্ড বাদক হিসেবে। ১৯৮০ সালে ‘একটি দুর্ঘটনা’ অ্যালবাম দিয়ে অডিও গানে তার অভিষেক ঘটে। প্রথম অ্যালবামেই তিনি বাজিমাত করেন।

১৯৮২ সালের দিকে ‘উচ্চারণ’ ব্যান্ডে কিছুদিন গিটার ও কিবোর্ড বাজিয়েছিলেন। পরবর্তীতে উচ্চারণ ছেড়ে দেন। তারপর ‘উইন্ডস’ নামে একটি ব্যান্ড দল গঠন করেছিলেন। অবশ্য তার পরিচয় মূলত গীতিকার ও সুরকার হিসেবে। নিজ কণ্ঠে গেয়েছেন হাতে গোনা তিন-চারটি গান।

১৯৮৪ সালে মালেক আফসারী পরিচালিত ‘রাস্তার ছেলে’ ছবিতে গান করেছেন বিখ্যাত এ সুরকার। তবে সর্বমোট পাঁচ-থেকে ছয়টি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন তিনি। আব্দুল্লাহ আল মামুনের ‘দুই বেয়াইর কীর্তি’ তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র।

 

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7854

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top