The news is by your side.

ওয়েলিংটন টেস্ট: ব্যাটিং ব্যর্থতায় ২১১ রানে সাজঘরে বাংলাদেশ

0 325

 

হ্যামিল্টনে বাংলাদেশকে কোনো সুযোগ দেয়নি নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশের ব্যর্থতার সুযোগ নিয়ে ইনিংস ও ৫২ রানে ম্যাচ জিতে নিয়েছে এক দিন বাকি থাকতেই। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে কাজটা এত সহজ হচ্ছে না। বেশ বড় চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেওয়া হয়েছে তাদের দিকে। মূল চ্যালেঞ্জটা আসলে ছুড়ে দিয়েছে প্রকৃতি। বৃষ্টিতে ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম দুই দিন ভেসে গেছে। নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং কোচ ক্রেইগ ম্যাকমিলান অবশ্য এতেও আশাহত নন। তিন দিনই টেস্ট জেতার জন্য যথেষ্ট বলে তাঁর ধারণা।

ম্যাকমিলানের কথাকে ঔদ্ধত্য বলা যাচ্ছে না। গত সফরে ওয়েলিংটনে প্রথম ইনিংসে ৫৯৫ রানে ইনিংস ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ, এ তথ্যটি জানার পরও নয়। কেন? কারণটি জানার আগে বরং ম্যাকমিলানের বক্তব্যটা জানা যাক, ‘এখনো প্রচুর সময় আছে। তিন দিন বেশ লম্বা সময় এবং অনেক টেস্টই আমরা এ সময়ের মধ্যে শেষ হতে দেখেছি। ম্যাচে বিভিন্ন সময় কন্ডিশন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেবে ব্যাটসম্যানদের দিকে। এটা ম্যাচের রূপ তাই খুব দ্রুত পাল্টে দিতে পারে। ম্যাচে তিনটি ফলই এখনো পাওয়া সম্ভব। আমাদের নিশ্চিত করতে হবে মাঠে নামার সময় আমরা সেরা ফর্মে যেন থাকি, যখনই হোক সেটা।’

ম্যাকমিলানের কথা সত্য হবে কি না, সেটা আগামী দুই দিনেই পরিষ্কার জানা যাবে। আজও বৃষ্টির কারণে বেশ বড় একটা সময় খেলা যায়নি। তবে প্রথম দিনেই (কাগজে-কলমে তৃতীয় দিন) ১২ উইকেটের পতন কিন্তু আশা বাড়াচ্ছে এ টেস্টের ফল নিয়ে। বাংলাদেশকে ২১১ রানে আটকে দিয়ে স্বাগতিক দলও খুব একটা স্বস্তিতে নেই। ৮ রান তুলতেই ২ উইকেট হারিয়ে ফেলা নিউজিল্যান্ড বৃষ্টি নামার আগে দিন শেষ করেছে ৩৮ রানে। ওয়েলিংটনে বাংলাদেশের অতীত তবু কিউইদের আশা বাড়িয়ে দিচ্ছে। ২০০২ সালে প্রথম সফরের দ্বিতীয় টেস্ট চতুর্থ দিনে গড়িয়ে ছিল। বাংলাদেশের কোনো কৃতিত্ব নেই সেখানে। বৃষ্টি টেস্টের দ্বিতীয় দিন পুরোটাই ভাসিয়ে দিয়েছিল। চতুর্থ দিনেও মাত্র ১৭ ওভার খেলা হয়েছিল।

তবে এবারের ওয়েলিংটন টেস্টের সঙ্গে সেবারের হ্যামিল্টন টেস্টের মিল বেশি। সেবারও প্রথম দুই দিন ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। পঞ্চম দিনে ৮০ বল খেলার পর ইনিংস ও ৫২ রানের পরাজয় মেনে নিতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। ম্যাকমিলান কেন আশান্বিত হবেন? কারণ সে টেস্টে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ২০৫ রান তুললেও দ্বিতীয় ইনিংসে ঠিকই ভেঙে পড়েছিল। দুই টেস্টেই মাঠে ছিলেন ম্যাকমিলান। তাই আশা দেখতেই পারেন নিউজিল্যান্ড কোচ। ২০০৮ সফরেও দুই টেস্টেই তিন দিনেই হেরে বসেছিল বাংলাদেশ। সেই দুই টেস্টেও ম্যাচের ব্যাপ্তি আড়াই দিনের বেশি হয়নি!

আজ ওয়েলিংটনের উইকেটের সবুজ রং দেখে বিস্মিত হয়েছেন অনেকেই। মাঠ আর উইকেটের মাঝে পার্থক্য করা কঠিন ছিল। ওয়েলিংটনে এমন উইকেট দেখে অভ্যস্ত ম্যাকমিলানও মানছেন এবার ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষা দিতে হবে, ‘সাধারণত ওয়েলিংটনে খেলা হলে প্রথম দুই দিন উইকেট সবুজ থাকে। কিন্তু এরপর বদলায়। গত কয়েক বছরে যেমন দেখেছি উইকেট (এ ম্যাচের) তেমনই ঘন সবুজ। এবং বৃষ্টির কারণে দুই দিন কভারের নিচে ছিল। এর মানে উইকেট একটু নরম থাকবে এবং বাড়তি কিছু দেবে, অন্তত গত কয়েক বছরে এমনই দেখা গেছে। দুই দলের জন্যই চ্যালেঞ্জ হবে কিন্তু এটা বাড়তি উত্তেজনাও এনে দিচ্ছে।’
দেখা যাক, ওয়েলিংটন আগামী দুই দিন সবাইকে কী উপহার দেয়!

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.