এবার ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা Reviewed by Momizat on . কুড়িগ্রামে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণকারী এক মুক্তিযোদ্ধা। মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে কুড়িগ্রাম পৌরসভার গাড়িয়ালপাড়ায় বাড়ির সামনের রাস্তায় হোসেন কুড়িগ্রামে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণকারী এক মুক্তিযোদ্ধা। মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে কুড়িগ্রাম পৌরসভার গাড়িয়ালপাড়ায় বাড়ির সামনের রাস্তায় হোসেন Rating: 0
You Are Here: Home » অপরাধ ও আইন » এবার ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা

এবার ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা

87513e0dea23ad9ea40613cd2de15f6d-56f131a0c2dc6

কুড়িগ্রামে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণকারী এক মুক্তিযোদ্ধা।
মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে কুড়িগ্রাম পৌরসভার গাড়িয়ালপাড়ায় বাড়ির সামনের রাস্তায় হোসেন আলীকে (৬৮) গলাকেটে হত্যা করেছে তিন মোটরসাইকেল আরোহী।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান চার থেকে পাঁচ মিনিটের মধ্যে তার মৃত্যু নিশ্চিত করে হাতবোমা ফাটিয়ে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।
সকালে ওই হত্যাকাণ্ডের পর কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তবারক উল্লাহ,জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিনসহ প্রশাসনের লোকজন ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন।
এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে তাদের পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।
পুলিশ বলছে, ধর্মান্তরিত হওয়া বা জমিজমার বিরোধে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
পরিবারের সদস্য ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রতিদিনের মতো সকালে হাঁটাহাঁটিতে বেরিয়েছিলেন হোসেন আলী। বাড়ি থেকে প্রায় আড়াইশ গজ দূরে আশরাফিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কুড়িগ্রাম-জিগামারী ঘাট পাকা সড়কে হাঁটছিলেন তিনি।
হঠাৎ কুড়িগ্রাম শহরের দাদা মোড় হয়ে একটি মোটর সাইকেল তার পাশে এসে দাঁড়ায়।মোটরসাইকেলে তিন জন আরোহীর মধ্যে দুজন কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ‘আল্লাহু আকবর’ বলে হোসেন আলীর গলায় কোপ দেয়।এতে গলার বেশিরভাগ অংশ কেটে যায়। মৃত্যু নিশ্চিত করে হত্যাকারীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
২৫ থেকে ৩০ বছরের তিন যুবক ৪/৫ মিনিটের মধ্যে এ হত্যাকাণ্ড ঘটায় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শী আবদার হোসেন ও নয়ন।
kurigram

কুড়িগ্রাম জেলার পাদ্রী (খ্রিস্টান ধর্মযাজক) রেভারেন্ট ফোরকান আল মসিহ জানান,হোসেন আলী ১৯৯৯ সালে খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করেন। সম্প্রতি তিনি তার সহকারী হিসেবে কাজ করছিলেন।
হোসেন আলীর ছেলে রাহুল আমিন আজাদ জানান “তার ধর্মান্তরিত হওয়া আমার বড় বোন হাসিনা বেগম মেনে নেয়নি। মা,আমি ও ছোট বোন নাসিমা মেনে নিয়ে বাবার পক্ষে ছিলাম।”
গ্রামের বাড়িতে জমিজমা নিয়ে তাদের প্রতিবেশীদের সঙ্গে বিরোধ রয়েছে বলেও জানান আজাদ।
মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আইনশৃঙ্খলা কমিটিতে এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।
এছাড়া জেলাব্যাপী মোটরসাইকেল তল্লাশি জোরদার করার সিদ্ধান্ত হয়।

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7211

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top