ইউএনও তারিক সালমানকে আদালতের বিশেষ কোন কামরায় নয়, হাজতখানায়ই রাখা হয়েছিল Reviewed by Momizat on . বরিশাল প্রতিনিধি বরগুনা সদরের বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারিক সালমানকে বরিশালের বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজতখানার বদলে আদালতে বিশেষ ব্য বরিশাল প্রতিনিধি বরগুনা সদরের বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারিক সালমানকে বরিশালের বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজতখানার বদলে আদালতে বিশেষ ব্য Rating: 0
You Are Here: Home » slider » ইউএনও তারিক সালমানকে আদালতের বিশেষ কোন কামরায় নয়, হাজতখানায়ই রাখা হয়েছিল

ইউএনও তারিক সালমানকে আদালতের বিশেষ কোন কামরায় নয়, হাজতখানায়ই রাখা হয়েছিল

Tariq Salmon-1

বরিশাল প্রতিনিধি

বরগুনা সদরের বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারিক সালমানকে বরিশালের বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজতখানার বদলে আদালতে বিশেষ ব্যবস্থায় রাখা হয়েছিলো বলে যে তথ্য দেয়া হয়েছিলো তা সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন  হাজতখানার বর্তমান দায়িত্বশীল পুলিশ কর্মকর্তা।

পুলিশ কর্মকর্তা এস আই আবদুল কালাম হাওলাদার মঙ্গলবার প্রথমে এ বিষয়ে কিছু বলতে না-চাইলেও পরে এ কথা স্বীকার করেন।

তিনি বলেন বিচারক প্রকাশ্য আদালতে জামিনের আবেদন খারিজ করার পরেই পুলিশ তাকে  হাজতখানায় নিয়ে যায়। ঐ দিন হাজতখানার রেজিষ্টারের ৩৩০ নং পাতায় ১নম্বরেই আসামির নাম উঠানো হয়। এরপর আবার জামিন দেয়া হলে তিনি সেখান থেকে মুক্তি পান।

এর আগে  বিচারকের পক্ষ হতে জানানো হয়েছিলো তারিক সালমানের জামিনের শুনানী মুলতবি করে  তাকে জামিনের জন্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আনিয়ে নেয়া পর্যন্ত নিরাপত্তার খাতিরে আদালতে বসিয়ে রেখে দু’ঘন্টা পর তা এলে তাকে জামিন দেয়া হয় ।

তবে মামলার বাদী জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক (বর্তমানে সাময়িক বহিস্কৃত)  ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদুল্লাহ সাজু এবং আদালতের এপিপি এডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন উভয়েই জানান প্রকাশ্য আদালতে গাজী তারিক সালমনের জামিন প্রথমে বাতিল করে তাকে হাজতে পাঠানো  হয়েছিলো। দু’ঘন্টা পর বিচারকের খাসকামরা হতে পেশকার মারফৎ তাকে জামিন দেয়ার কথা জানানো হয়।

উল্লেখ্য আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা কালে এ বছর ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্রের পেছনের পাতায় বঙ্গবন্ধুর ছবি ছাপানো হয় । এ ছবিটি ছিলো অদ্রিজা কর নামে এক শিশুর আকা এবং চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় পুরস্কার প্রাপ্ত।

আমন্ত্রণপত্রে ছাপানো বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃত এবং পেছনের পাতায় বঙ্গবন্ধুর ছবি ছাপানোয় মানহানি হয়েছে উল্লেখ করে ৭ জুন বরিশাল জেলা এডভোকেট ওবায়েদুল্লাহ সাজু বাদী হয়ে ইউএনও গাজী তারিক সালমনের বিরুদ্ধে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৫ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে একটি মামলা রুজু করেন।

মামলা আমলে নিয়ে বিচারক ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে গাজী তারিক সালমানকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়ে সমন জারি করলে  গত ১৯ জুলাই গাজী তারিক সালমন আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন।

ঐ দিন প্রথমে গাজী তারিক সালমনের জামিন আবেদন প্রকাশ্যে নাকচ করে  কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বরিশালের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আলী হোসাইন।

এর দুই ঘণ্টা পর আবার তিনি গাজী তারিক সালমনের জামিন মঞ্জুর করেন।

ওই মামলা দায়েরকারীকে ইতোমধ্যে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। মামলাটিও ২৩ জুলাই প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

ইতমধ্যে মামলার বিচারকের সার্কিট হাউজের বকেয়া ভাড়া পরিশোধ না-করা ও লঞ্চের ভাড়া না দেয়ার বিষয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এ সবের প্রেক্ষিতে সর্বূশেষ জানা গেছে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্তি রেজিস্ট্রার (প্রশাসন ও বিচার) সূত্রে জানা গেছে বরিশালের সিএমএমকে প্রত্যাহারের প্রস্তাব আইন মন্ত্রনালয় থেকে সুপ্রিম কোর্র্টের জেনারেল অ্যাডমিন্টিস্ট্রেশন (জিএ) কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। তারা  এখন এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে তা আইন মন্ত্রণালয়কে জানাবে।

About The Author

admin

সংবাদের ব্যাপারে আমরা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করি।বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায়। আমাদের প্রত্যাশা একাত্তরের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাক সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত দেশের পর্যায়ে।

Number of Entries : 7902

Leave a Comment

সম্পাদক : সুজন হালদার, প্রকাশক শিহাব বাহাদুর কতৃক ৭৪ কনকর্ড এম্পোরিয়াম শপিং কমপ্লেক্স, ২৫৩-২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা থেকে প্রকাশিত। ফোনঃ 02-9669617 e-mail: info@visionnews24.com
Design & Developed by Dhaka CenterNIC IT Limited
Scroll to top